১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

আগৈলঝাড়ায় বাল্য বিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও, ৫ হাজার টাকা জরিমা

শামীম আহমেদ :: বরিশালের আগৈলঝাড়ায় ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারককে দেখে বাল্য বিয়ের আসর থেকে পালিয়ে গেছে বর ও বরযাত্রী। করোনা মহামারীর মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে মাদ্রাসা ছাত্রীর বাল্য বিয়ের আয়োজন করায় মেয়ের মাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আবুল হাশেম জানান, উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের খাজুরিয়া গ্রামের কাজল মিয়া ও নার্গিস বেগমের মেয়ে ও খাজুরিয়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী রিমা আক্তার কাজলীর (১৪) সাথে পাশ^বর্তি কোটালীপাড়া উপজেলার কালার বাড়ি গ্রামের কবির খানের ছেলে জাহিদুল ইসলামের সাথে পূর্ব নির্ধারিত বিয়ের তারিখ ছিল আজ রোববার।

নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী রোববার দুপুরে বর নিয়ে বরযাত্রীরা মেয়ের বাড়িতে এসে আপ্যায়িত হয়। খরব পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট মো. আবুল হাশেম এসআই জসীম উদ্দিনকে সাথে নিয়ে মেয়ের বাড়িতে হাজির হন। আদালতের বিচারককে দেখে বর জাহিদুল ইসলাম ও মেয়ের বাবা কাজল মিয়া পালিয়ে যায়। একই সাথে পালিয়ে যায় অনেক বর যাত্রীও।

পরে আদালতের বিচারক মো. আবুল হাশেম করোনা মহামারীর মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করা ও বাল্য বিয়ের আয়োজন করার অপরাধে মেয়ের মানার্গিস বেগমকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। একই সাথে পূর্ণ বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে দেবে না মর্মে মেয়ের মা নার্গিস বেগম মুলচেকা দেয় আদালতের কাছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ