২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

আগৈলঝাড়ায় বৃষ্টিতে আশ্রয় নিতে গিয়ে কলেজছাত্রীর শ্লীলতাহানী করলো স্বাস্থ্যকর্মী!

নিজস্ব প্রতিনিধি :: বরিশালের আগৈলঝাড়ায় হঠাৎ বৃষ্টি নামায় আশ্রয় নিতে গিয়ে স্বাস্থ্য সহকারীর হাতে শ্লীলতাহানীর শিকার হয়েছেন এক কলেজছাত্রী। এসময় ওই ছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে ওই স্বাস্থ্য কর্মীকে আটক করে মারধর করে পুলিশের কাছে সোর্পদ করেন।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার পশ্চিম রাজিহার নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে শ্লীলতাহানীর শিকার ওই ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে স্বাস্থ্য সহকারী আরিফ মোল্লার বিরুদ্ধে মামলা করলে পুলিশ ওই মামলায় আরিফ মোল্লাকে গ্রেফতার দেখিয়ে বরিশাল আদালতে প্রেরণ করেছে। শ্লীলতাহানীর শিকার ওই ছাত্রীর বক্তব্য শুনে থানা পুলিশকে চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে চার্জশীট দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শাহজাহান হোসেন।

থানায় দায়ের করা এজাহারের বরাত দিয়ে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. গোলাম ছরোয়ার জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অধীনে কর্মরত স্বাস্থ্য সহকারী মোঃ আরিফ মোল্লা মঙ্গলবার সকালে শিশুদের ভিটামিন এ- প্লাস খাওয়ানোর জন্য পশ্চিম রাজিহার কেন্দ্রে যাচ্ছিল। হঠাৎ বৃষ্টি নামলে পশ্চিম রাজিহার রাস্তার পাশে একটি ঘরে দৌড়ে আশ্রয় নেয় আরিফ মোল্লা। এসময় ওই ঘরে একা থাকা কলেজছাত্রীর শ্লীলতাহানী ঘটায় আরিফ। এসময় ওই কলেজ ছাত্রীর ডাক চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে আরিফকে মারধর করে আটকে রাখে। খরব পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অবরুদ্ধ আরিফ মোল্লাকে উদ্ধার করে। এ সময় শ্লীলতাহানীর শিকার ছাত্রী ও তার বাবা মাসহ তাদেরকে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

অভিযুক্ত স্বাস্থ্য সহকারী আরিফ মোল্লা উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের বসুন্ডা গ্রামের মৃত লেহাজ উদ্দিন মোল্লার ছেলে।

থানায় বসে শ্লীলতাহানীর শিকার ওই ছাত্রীর বক্তব্য শোনেন জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শাহজাহান হোসেন (প্রশাসন)। এ সময় তিনি আগামী চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে মামলায় চার্জশীট দাখিলের জন্য ওসি গোলাম ছরোয়ারকে নির্দেশনা প্রদান করেন।

এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে আরিফ মোল্লাকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন, যার নং-৫(৮.৬.২১)। ওই মামলায় মঙ্গলবার দুপুরে অভিযুক্ত আরিফ মোল্লাকে গ্রেফতার দেখিয়ে পুলিশ প্রহরায় হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে আদালতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে উপজেলা হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচএএফপিও) ডাঃ বখতিয়ার আল মামুন বলেন, বিষয়টি জেলা সিভিল সার্জনকে অবহিত করা হয়েছে। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ঘটনার তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলেও জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ