২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
আমতলীর গুলিশাখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত দুমকি প্রেসক্লাবের ২৮ বছর পূর্তি উপলক্ষে আলোচনা সভা, কেক কাটা অনুষ্ঠান কাউখালীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু ভোলায় শ্রেষ্ঠ ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা হলেন‌ মো: ইদ্রিস মঠবাড়িয়ায় বাস চাঁপায় নিহত-১, আহত-২llচালক ও হেলপার আটক কাউখালীর ভূমি অধিদপ্তরের তিন কর্মকর্তা জেলার শ্রেষ্ঠ তথ্য মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিবের সাথে বরিশাল প্রকাশক ও সম্পাদক পরিষদের মতবিনিময় প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টা করলেন চেয়ারম্যান বাজারের কীটনাশক ব্যবসায়ী! মাদারীপুরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মৌলিক প্রশিক্ষণ রাতে উড়ে গলাচিপা ভূমি অফিসে জাতীয় পতাকা

আমতলীতে ‘উদ্দীপন’ এর ঋণের কিস্তি নিয়ে মারামারি !

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
বে-সরকারী সংস্থা উদ্দীপনের ঋণের কিস্তি পরিশোধকে কেন্দ্র করে মারামারিতে বায়েজিদ আকন নামে এক গ্রাহক আহত হয়েছে। আহত বায়েজিদকে স্বজনরা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। ঘটনা ঘটেছে বুধবার দুপুরে আমতলী উপজেলার দক্ষিণ আমতলী গ্রামে।
জানাগেছে, উপজেলার দক্ষিণ আমতলী গ্রামের মহিবুল্লাহ আকন বে-সরকারী সংস্থা উদ্দীপন আমতলী শাখার থেকে গত বছর জুন মাসে ৪০ হাজার টাকা ঋণ নেয়। মহিবুল্লাহ ঢাকা থাকায় ওই ঋণের কিস্তি তার ছোট ভাই বায়েজিদ আকন পরিশোধ করে আসছে। করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারন করায় ঋণের কিস্তি আদায় বন্ধ হয়ে যায়। মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরীর সিদ্ধান্ত মতে ঋণ গৃহিতা ইচ্ছাপূর্বক কিস্তি দিতে চাইলে ওই টাকা সংস্থা আদায় করতে পারবে। বুধবার আমতলী উদ্দীপন শাখার সেকেন্ড অফিসার মোঃ কামরুজ্জামান ও ফিল্ড অফিসার ফাতেমা বেগম সঞ্চয় ও ওই ঋণের টাকা আদায় করতে দক্ষিণ আমতলী বারেক হাওলাদার বাড়ীর সমিতিতে যান। ওই সময় বারেক হাওলাদার উদ্দীপনের লোকজনের পক্ষ নিয়ে বায়েজিদের কাছে কিস্তির টাকা চায় এমন দাবী বায়েজিদের। এদিকে ওই উদ্দীপন সংস্থার সদস্য নাসিমা বেগম গত তিন মাস আগে বায়েজিদের ঋণের একটি কিস্তি পরিশোধ করে। ওই কিস্তির টাকা বায়েজিদ এখনও নাসিমাকে ফিরিয়ে দেয়নি। ওইদিন উদ্দীপনের লোকজন ঋণের কিস্তির টাকা নিতে আসলে নাসিমা বেগমের স্বামী বারেক হাওলাদার বায়েজিদের কাছে ওই কিস্তির পাওনা টাকা চাইতে যান। এ সময় বায়েজিদের সাথে বারেক হাওলাদারের কথা কাটাকাটি হয় এমন দাবী নাসিমা বেগমের। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তার তিন ছেলে জুয়েল হাওলাদার,সোহেল ও রেজাউল হাওলাদার বায়েজিদ আকনকে মারধর করেছে। খবর পেয়ে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। এ ঘটনায় ওইদিন সন্ধ্যায় বায়েজিদ আকন বাদী হয়ে জুয়েল হাওলাদারকে প্রধান অভিযুক্ত করে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী মোঃ অসিমসহ কয়েকজন বলেন, ঋণের কিস্তির টাকাকে কেন্দ্র করে বায়েজিদকে তিন ভাই জুয়েল হাওলাদার, রেজাউল হাওলাদার ও সোহেল হাওলাদার মারধর করেছে।
বায়েজিদ আকন বলেন, আমার ভাই মহিবুল্লাহ উদ্দীপন সংস্থা থেকে গত বছর ৪০ হাজার টাকা ঋণ নিয়েছে। ভাই ঢাকা থাকায় ওই ঋণের কিস্তির টাকা আমি পরিশোধ করে আসছি। বুধবার উদ্দীপনের লোকজন কিস্তির টাকা নিতে আসলে বারেক হাওলাদার তাদের পক্ষ নিয়ে আমার কাছে টাকা চায়। এ নিয়ে আমার সাথে তার কথা কাটাকাটি হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তার তিন ছেলে আমাকে মারধর করেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।
জুয়েল হাওলাদারের মা উদ্দীপন সংস্থার সদস্য মোসাঃ নাসিমা বেগম বলেন, বায়েজিদের একটি ঋণের কিস্তি আমি পরিশোধ করেছিলাম। উদ্দীপনের লোকজন কিস্তি নিতে আসলে আমার স্বামী বায়েজিদের কাছে ওই কিস্তির টাকা চায়। এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় আমার ছেলে জুয়েল লাঠি দিয়ে বায়েজিদকে একটি পিটান দিয়েছে মাত্র।
বে-সরকারী সংস্থার উদ্দীপনের ফিল্ড অফিসার মোসাঃ ফাতেমা বেগম বলেন, বায়েজিদ আকনকে মারধরের ঘটনায় আমাদের কোন সংশ্লিষ্টতা নেই। এটা তাদের পারিবারিক বিষয়।
বে-সরকারী সংস্থার উদ্দীপনের আমতলী শাখা ম্যানেজার মোঃ ইলিয়াস মিয়া বলেন, সংস্থার ফিল্ড অফিসারগণ সঞ্চয় টাকা আদায় করতে গিয়েছিল কোন ঋণ আদায় করতে যায়নি। ওইখানে যে ঘটনা ঘটেছে তার সাথে উদ্দীপন সংস্থার কোন লোকজনের সংশ্লিষ্টতা নেই।
আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোঃ হারুন অর রশিদ বলেন, বায়েজিদকে যথাযথ চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
আমতলী থানার এসআই মহিউদ্দিন বলেন, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ