৪ঠা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ইন্দুরাকানীতে গরু জবাইয়ের চাকু দেখিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করলেন ইমাম!

পিরোজপুর প্রতিনিধি :: পিরোজপুরের ইন্দুরাকানীতে অপহরণ করে আটকে রেখে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় এক মসজিদের ইমামের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই ইমামের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। রোববার (১৮ জুলাই) রাতে ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মসজিদের ইমাম আল-হাফিজ ওরফে হাফিজুল ইসলামের বিরুদ্ধে ইন্দুরকানী থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

অভিযুক্ত ইমাম হাফিজুল ইসলাম জেলার কাউখালী উপজেলার সদর ইউনিয়নের নাঙ্গুলি গ্রামের ইউনুস আলীর ছেলে। আর ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রী ওই ইমামের কাছে আরবি পড়তো।

মামলা ও ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই স্কুলছাত্রী তার খালার বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। পথিমধ্যে ওই ইমাম তার সঙ্গে কথা আছে বলে ফুসলিয়ে ও ভয়ভীতি দেখিয়ে ওই মসজিদ সংলগ্ন উত্তর পাশে তার (ইমাম) থাকার কক্ষে নিয়ে যান। সেখানে নিয়ে ওই স্কুলছাত্রীর শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন। এসময় ওই স্কুলছাত্রীর চিৎকার দিতে চাইলে সেখানে থাকা গরু জবাই দেওয়ার চাকু দিয়ে গলা কেটে হত্যা করা হবে বলে হুমকি দেন। পরে ওই কক্ষে তালা দিয়ে তাকে আটকে রাখেন। ওই রাতে স্কুলছাত্রীর স্বজনরা তাকে অনেক খোঁজাখুঁজির পর ওই ইমামের ঘরে তালা বদ্ধ ও অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে।

স্থানীয়রা জানান, ওই রাতে স্থানীয়রা ওই ইমামকে আটক করে পাড়েরহাট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও উপজেলা জাতীয় পার্টির (জেপি) সহ-সভাপতি মো. গোলাম সরোয়ার বাবুলের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ইউপি চেয়ারম্যান ওই ইমামকে ১০০ জুতা পেটা ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এ বিষয়ে ইন্দুরকানী থানার (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির জানান, এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পিতা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন। অভিযুক্ত ইমামকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ