১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ঈদ কবে, জানা যাবে আজ

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

বাংলাদেশে মুসলমানদের দ্বিতীয় বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা কবে হবে- সেই তারিখ নির্ধারণে আজ সন্ধ্যায় সভায় বসবে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি। এই সভার মাধ্যমেই জানা যাবে পবিত্র ঈদুল আজহা আগামী ৩১ জুলাই হবে না ১ আগস্ট অনুষ্ঠিত হবে।

মঙ্গলবার বাদ মাগরিব ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে। ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নূরুল ইসলাম এতে সভাপতিত্ব করবেন বলে ফাউন্ডেশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

মঙ্গলবার জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেলে বুধবার থেকে জিলহজ মাস গণনা শুরু হবে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশে ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে আগামী ৩১ জুলাই। আর চাঁদ দেখা না গেলে বুধবার জিলকদ মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হবে। সেক্ষেত্রে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে জিলহজ মাস গণনা শুরু হবে, দেশে ঈদ হবে ১ আগস্ট।

গতকাল সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের আকাশে পবিত্র জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। তাই মধ্যপ্রাচ্যে আগামী বুধবার থেকে জিলহজ মাস শুরু হবে। সে হিসেবে জিলহজ মাসের ৯ তারিখে অর্থাৎ ৩০ জুলাই পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। আর পরদিন ৩১ জুলাই মধ্যপ্রাচ্যে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন হবে।

সাধারণত সৌদির আকাশে চাঁদ দেখার পরদিন বাংলাদেশে চাঁদ দেখা যায়। সে হিসেবে আজ বাংলাদেশের আকাশে জিলহজ মাসের চাঁদ না দেখার সম্ভাবনা বেশি। তাই ১ আগস্ট বাংলাদেশে ঈদ হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

জিলহজ মাসের ১০ তারিখে বিশ্বের মুসলমানরা তাদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব কোরবানির ঈদ পালন করেন। এই উৎসবে পশু কোরবানি দেওয়া হয়, যার মধ্য দিয়ে নিজের ভেতরের কলুষতাকে বর্জন এবং সৃষ্টিকর্তার সন্তুষ্টি লাভই ইসলামের শিক্ষা।

গত রোজার ঈদের মত এবারের কোরবানির ঈদও হচ্ছে করোনাভাইরাসের মহামারির মধ্যে। ফলে ঈদের নামাজ থেকে শুরু করে সব ক্ষেত্রেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কড়াকড়ি থাকছে। ধর্ম মন্ত্রণালয় আগেই জানিয়েছে, ভাইরাসের বিস্তার রোধে রোজার মত কোরবানির ঈদের জামাতও এবার মসজিদের পড়তে হবে। সেক্ষেত্রেও নামাজ পড়তে হবে দূরত্ব বজায় রেখে, করা যাবে না কোলাকুলি।

বাংলাদেশের আকাশে কোথাও জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেলে তা ৯৫৫৯৪৯৩, ৯৫৫৫৯৪৭, ৯৫৫৬৪০৭ ও ৯৫৫৮৩৩৭ নম্বরে ফোন করে অথবা ৯৫৬৩৩৯৭ ও ৯৫৫৫৯৫১ নম্বরে ফ্যাক্স করে কিংবা সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা প্রশাসক (ডিসি) বা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে (ইউএনও) জানাতে অনুরোধ করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

সর্বশেষ