২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

উজিরপুরে শিক্ষিকার জমি দখলের পায়তারা

উজিরপুর প্রতিনিধি :: বরিশালের উজিরপুরে গুঠিয়ায় মহিলা শিক্ষিকার জমি দখলের পায়তারা চালাচ্ছে প্রতিপক্ষ প্রভাবশালী সন্ত্রাসীরা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগ ও ভুক্তভোগী সুত্রে জানা যায়- উপজেলার গুঠিয়া ইউনিয়নের তেরদ্রোন গ্রামের মোঃ কামরুজ্জামান হাওলাদারের স্ত্রী স্কুল শিক্ষিকা মোসাঃ শেফালী খানম(৩৬) এর দলিলকৃত ভোগদখলীয় জমি প্রতিপক্ষ বৈরকাঠী গ্রামের শাহজাহান খানের ছেলে ফয়সাল খান(৪০), তেরোদ্রন গ্রামের মৃত কাছেম হাওলাদারের ছেলে জমির দালাল হিসেবে পরিচিত ইকবাল হাওলাদার(৫০), গুঠিয়া গ্রামের আব্দুল জলিল হাওলাদারের ছেলে মিজানুর রহমান হাওলাদার(৩০), তেরোদ্রন গ্রামের সেলিম হাওলাদারের ছেলে গ্রাম পুলিশ আমির হাওলাদার(৪০), গুঠিয়া গ্রামের মৃত মোজাহার আলি হাওলদারের ছেলে মেহেদী হাসান হাওলাদার গংরা মিলে ৩১ মে বেলা ১২ টায় দেশীয় অস্ত্র সাজে সজ্জিত হয়ে জোরপূর্বক দখল করার চেষ্টা চালায়। এ সময় শিক্ষিকা শেফালী খানম প্রতিবাদ করলে তার উপর অতর্কিত ভাবে হামলা চালায় এবং বিভিন্ন ভয়ভীতি ও জমি থেকে উৎখাত করার হুমকী দেয়। জানা যায় জে.এল ১০৭ নং গুঠিয়া মৌজায় এস,এ ৭০০/৭০১নং খতিয়ান, দাগ নং-৫৪৬/৫৭৭ মোট ৮ শতাংশ জমি মেহেদী হাসান গংদের কাছ থেকে ক্রয় করে ভোগদখল করে আসছে। যাহার দলিল নং-৫২৪৬, তারিখ-২৬/১২/২০১৭ইং। শিক্ষিকার দলিলকৃত উক্ত জমি দখলের মিশনে নেমেছে প্রভাবশালীরা। হুমকীর মুখে আতঙ্কে ভুক্তভোগী পরিবার।

অপরদিকে গুঠিয়া গ্রামের জলিল হাওলাদারের ছেলে মিজান হাওলাদার ৪/৯/২০১৯ সালে উজিরপুর এসআর অফিসে একই দাগ খতিয়ান হইতে পিছনের অংশের ৮ শতাংশ জমি ক্রয় করে মহিলার শিক্ষিকার ক্রয়কৃত ভোগদখলীয় ওই ৮ শতাংশ জমি দখলের পায়তারা চালায়। এ ব্যাপারে শেফালী বেগম বাদী হয়ে উল্লেখ্য অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে উজিরপুর মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযুক্তদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

মহিলা শিক্ষিকা শেফালী খানম জানান- আমাকে মারধর করে কতিপয় ভ‚মিদস্যু সন্ত্রাসীরা আমার দলিলকৃত ভোগদখলীয় জমি জোরপূর্বক দখল করতে চায়। এমনকি ওই জমি নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে শালিস বৈঠকে আমার পক্ষে রায় হওয়ার পরেও ওই ভ‚মিদস্যুরা তা আমান্য করে আমার জমির সীমানা প্রাচির ভেঙ্গে ফেলে ক্ষমতার দাপটে জোরপূর্বক দখল করতে চায়। এছাড়াও আমাকে এলাকাছাড়া করবে এবং পরবর্তীতিতে আমার জমি জোরপূর্বক দখল করে নেবে বলে হুমকী দেয়।

তিনি আরো জানান- প্রতিপক্ষরা এলাকায় ভূমিদস্যু নামে পরিচিত। অন্যের জমি ক্ষমতার দাপটে জোরপূর্বক দখল করা তাদের নেশা ও পেশা। এলাকায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগের অন্ত নেই।

উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জিয়াউল আহসান জানান অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এদিকে অসহায় স্কুল শিক্ষিকা ওই প্রভাবশালী ভূমিদস্যুদের কবল থেকে রক্ষা পেতে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ