৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র কেনার হিড়িক

পাঁচ সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র কেনার ধুম পড়েছে। দলীয় মনোনয়নপত্র বিক্রির ৬ষ্ঠ দিনে গতকাল ১৩১টি মনোনয়নপত্র বিক্রি হয়েছে। আজও দলীয় সভানেত্রীর কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র বিতরণ ও জমাদান করা হবে।

প্রতিটি মনোনয়নপত্রের দাম ধরা হয়েছে ২৫ হাজার টাকা। এতে আওয়ামী লীগের ফান্ডে আয় হয়েছে ৩৩ লাখ ৫ হাজার টাকা। এর মধ্যে জাতীয় সংসদের নওগাঁ-৬ আসনে ৩২ জন, পাবনা-৪ আসনে ২৮ জন, ঢাকা-৫ আসনে ১৮ জন, ঢাকা-১৮ আসনে ৫০ জন এবং সিরাজগঞ্জ-১ আসনে তিনজন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। দলের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া ও উপদফতর সম্পাদক সায়েম খানের কাছ থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

আওয়ামাী লীগের মনোনয়ন দৌড়ে যেমন রয়েছেন মৃত সংসদ সদস্যদের পরিবারের সদস্য, তেমনি ব্যবসায়ী, আইনজীবী, ছাত্রনেতা ও সক্রিয় রাজনীতির সঙ্গে জড়িত নন এমন ব্যক্তিও। কেউ মনোনয়ন পাওয়ার আশায় এবং কেউ নিজের নাম প্রচারের জন্য মনোনয়নপত্র তুলেছেন বলে জানা গেছে। আবার কেউ কেউ ডামি প্রার্থীও হয়েছেন। পাবনা-৪ আসনে ২৮ জনের মধ্যে রয়েছেন প্রয়াত এমপি সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে, জামাই, খালাতো ভাই, ভগ্নিপতি মিলে ছয়জন। পরিবার থেকে এ আসনেই সর্বোচ্চ সংখ্যক মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা হয়েছে। এ ছাড়া সিরাজগঞ্জ-১ আসনে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলীর দুই নাতি তানভির শাকিল জয় ও মো. শেহরীন সেলিম মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। তানভির শাকিল জয় প্রয়াত এমপি মোহাম্মদ নাসিমের ছেলে এবং ড. সেলিমের ছেলে মো. শেহরীন সেলিম। নাসিম ও সেলিম দুজনই আওয়ামী লীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য। এখানে অমিত কুমার দেব নামেও একজন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। অন্য আসনগুলোতে পবিবার থেকে একটি করে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা হয়েছে। কাল সোমবার আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভায় ৫টি আসনে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে বলে দলীয় সূত্র জানিয়েছে। নির্বাচন কমিশন-ইসি সূত্র জানায়, ঢাকা-১৮ ও পাবনা-৪ আসনের উপনির্বাচন নিয়ে আজ নির্বাচন কমিশন বৈঠকে বসবে। আজ তফসিল ঘোষণা করা হতে পারে। আগামী ২৪-২৬ কিংবা ২৭ সেপ্টেম্বর এ দুটি আসনে উপনির্বাচন হতে পারে। নির্বাচনী এলাকার ভোটার ও আওয়ামী লীগের একাধিক সূত্র জানায়, দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশার চেয়ে নিজেদের উপস্থিতি ও গ্রহণযোগ্যতা বাড়াতেই প্রতিটি আসনে মনোনয়ন কেনার হিড়িক পড়েছে। এতে করে তারা এলাকায় নিজেদের অস্তিত্ব যেমন জানান দিচ্ছেন, তেমনি দৃষ্টিতে আসার জন্যও কেউ কেউ মনোনয়নপত্র কিনছেন। নির্বাচনী এলাকায় পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুন ছাপিয়ে দোয়া চাইছেন। নওগাঁ-৬ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বিমান কুমার রায়, মোছা. মমতাজ বেগম, মোছা. হামিদা বেগম, মো. মান্নান মোল্লা, মো. ইউনুস আলী প্রামানিক, মো. রেজাউল ইসলাম, এস এম আবদুল জলিল প্রমুখ। পাবনা-৪ আসনে মো. রবিউল আলম (বুদু), গালিবুর রহমান শরীফ, সাহেদ রহমান, আবদুস সাত্তার, কামরুন্নাহার শরীফ প্রমুখ। ঢাকা-৫ আসনে প্রয়াত এমপি হাবিবুর রহমান মোল্লার ছেলে মশিউর রহমান সজল, হারুন উর রশিদ সিআইপি, এম এ কাশেম, হারুন-উর রশিদ মুন্না, কাজী মনিরুল ইসলাম মনু, আতিকুর রহমান আতিক, মেহরিন মোস্তফা দিশি, মো. ইসহাক মিয়া, মো. আফসার উদ্দিন খান, মো. মোস্তাফিজুর রহমান মনোনয়নপত্র কিনেছেন। ঢাকা-১৮ আসনে ডি এম শামীম, নাজমা আক্তার, মমতাজ উদ্দিন মেহেদী, মোহাম্মদ হাবীব হাসান, এম এ বাসার প্রমুখ মনোনয়নপত্র কিনেছেন।
ঢাকা-১৮ ও পাবনা ৪ আসন নিয়ে ইসির বৈঠক আজ : ঢাকা-১৮ ও পাবনা-৪ আসনের উপনির্বাচন এবং বিভিন্ন স্থানীয় সরকারের নির্বাচন নিয়ে আজ বৈঠকে বসছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হলে আজ ঢাকা-১৮ ও পাবনা-৪ আসনের উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হতে পারে। এক্ষেত্রে নির্বাচন হবে ২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে। ইসির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আজ ২৩ আগস্ট নির্বাচন কমিশনের বৈঠক রয়েছে। বৈঠক শেষে এ দুই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হতে পারে। কেননা পাবনা-৪ আসন শূন্য হয়েছে গত ২ এপ্রিল। প্রথম ৯০ দিন শেষ হয়েছে গত ৩০ জুন। পরবর্তী ৯০ দিন শেষ হবে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর। ঢাকা-১৮ আসন শূন্য হয় গত ৯ জুলাই। শূন্য হওয়ার পর ৯০ দিন পূর্ণ হবে ৬ অক্টোবর। তারা বলেছেন, আগামী ২৪, ২৬ অথবা ২৭ সেপ্টেম্বর ভোট গ্রহণের তারিখ হতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ