৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

একটু বৃষ্টি হলেই বরিশাল নগরী পানিতে টইটুম্বুর

বরিশাল বাণী: বৃষ্টি হলেই দুশ্চিন্তায় মাথায় হাত বরিশাল নগরবাসির। অথচ অসংখ্য খাল বেষ্ঠিত বরিশাল নগরীর অপরিকল্পিক ড্রেনেজ ব্যবস্থায় বেহাল দশায় নাগরিক জীবন। নামমাত্র বৃষ্টি হলেই বরিশাল নগরীর মূল শহরের প্রধান প্রধান সড়কে হাটুপানি জমে থাকে। এতে চরম জনদুর্ভোগ নেমে আসে নগরিক জীবনে।
এদিকে বরিশালে আজ রোববার দুপুরের পর থেকে একটানা মাঝারি ও ভারী বর্ষণে নগরের অধিকাংশ রাস্তাঘাটে হাঁটুপানি জমেছে। এতে যানবাহন চলাচল ব্যাহত হওয়ার পাশাপাশি নগরবাসী সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েছেন। নগরের অনেক নিচু এলাকার বসতবাড়িতে পানি ঢুকেছে। তৈরি হয়েছে জলাবদ্ধতা। গত শুক্রবার রাত থেকেই বরিশালে বৈরী আবহাওয়া এবং থেমে থেমে বৃষ্টিপাত শুরু হয়। গতকাল শনিবার সারা দিন থেমে থেমে প্রায় ১৯ দশমিক ২ সেন্টিমিটার বৃষ্টি হয়।
রোববার সকাল থেকে মেঘলা ও ঝোড়ো আবহাওয়া বিরাজ করলেও বৃষ্টি ছিল না। বেলা একটার পর শুরু হয় মাঝারি ও ভারী বৃষ্টি। সঙ্গে প্রবল বজ্রপাত ও ঝড়ো হাওয়া। টানা বৃষ্টিতে ডুবে গেছে বরিশাল নগরীরর রাস্তাঘাট। দুপুরের পর শুরু হওয়া বৃষ্টিতে নগরের হাঁটুসমান পানি জমে পলিটেকনিক গলি, আমির কুটির, মুনসির গ্যারেজ, অক্সফোর্ড মিশন, বগুড়া রোড, বাংলাবাজার, হালিমা খাতুন স্কুলের পাশের গলিসহ নগরীর প্রধান সব সড়ক। এসব এলাকার অনেক নিচু বাড়িঘরে পানি ঢুকে পড়েছে। বৃষ্টিতে দুর্ভোগে পড়েন অফিসফেরত লোকজনও। বিকেলে বৃষ্টির পর অনেকেই আটকা পড়েন। পরিবহন সংকটে বাসায় ফিরতে বেগ পেতে হয়।
এদিকে বরিশাল আবহাওয়া দপ্তরের জ্যেষ্ঠ পর্যবেক্ষক মাহফুজুর রহমান বলেন, বেলা ৩টা পর্যন্ত বরিশালে ১৫ দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড হয়েছে। বঙ্গোপসাগরে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় বিভাগের অধিকাংশ স্থানে আরও ভারী অথবা মাঝারি বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা আছে। একই সঙ্গে দমকা ও ঝোড়ো হাওয়া, বজ্রসহ বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। আজ সোমবারও একই অবস্থা বিরাজের পর মঙ্গলবার পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে পারে।
এদিকে নগর জীবনে চরম দুভোর্েেগর স্বীকার মানুষ নানা মন্তব্য ব্যক্ত করেন। তরা বলেন, নদী বেষ্ঠিত বরিশাল নগরীতে বৃষ্টির পানি জমে জনদুর্ভোগ অনেক পুরাতন সমস্যা। বরিশাল সিটি কর্পোরেশন অধীন ড্রেনেজ ব্যবস্থা অপরিকল্পিত। ড্রেনের সাথে খান বা নদীর সংযোগ সরু এবং নির্মিত ড্রেণ অপরিচ্ছন্ন। বৃষ্টি হলে নগরীতে পানি জমে নদীতে জোয়ারে নয়। এর জন্য অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থাই দায়ী।
তারা বলেন, বর্তমান সিটি মেয়র ক্ষমতায় আসার আগে নগর জীবনের মানউন্নয়ন এবং মানুষের সেবায় সকল অবকাঠামো টেশসই করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তিনি নাগরিকদের নিকট প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেছিলেন, বরিশাল হবে আধুনিক “সিঙ্গাপুর”। আজ সেই সিঙ্গাপুরে বৃষ্টি হলেই হাটুপানি। আমরা এই দুর্ভোগ হতে মুক্তি পেতে সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের দৃষ্টি কামনা করছি।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ