১৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
প্রখ্যাত সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরী আর নেই কর্মস্থলে সিনিয়র-জুনিয়র সম্পর্ক বরিশালে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকদের ঈদ পুনর্মিলনী ও মধুমাস উদযাপন কাউখালীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের নতুন চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. কাজী শহীদুল আলম ভোলায় পুলিশের সহায়তায় বাকপ্রতিবন্ধী মেয়ে খুঁজে পেলো নিরাপদ আশ্রয়স্থল পটুয়াখালী চেম্বার অব কমার্সের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য হলেন অধ্যাপক ডাঃ মনিরুজ্জামান শাহীন নির্মিত হলো জিনিয়া জিনি'র মিউজিক ভিডিও 'ও সাথী' ঢাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী ২টি হত্যা মামলায় মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত পলাতক আসামী বিপ্লব উজিরপুরে গ্রেফতার

এক ব্যবসায়ীর গুদামেই মিলল ৫৭ হাজার লিটার সয়াবিন

অনলাইন ডেস্ক।।
খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলায় এক ব্যবসায়ীর পৃথক ৪টি গুদামে ৫৭ হাজার লিটার সয়াবিন তেলের অবৈধ মজুতের সন্ধান পেয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। অবৈধভাবে ভোজ্যতেল মজুত করে বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি দায়ে রামগড় পৌরসভার সোনাইপুল বাজারের মেসার্স খাঁন ট্রেডার্স নামে ওই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক ফজলুল করিম পাটোয়ারীকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ সময় একই অপরাধে ওই বাজারের মেসার্স আলমগীর স্টোরকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

শনিবার (০৭ মে) দুপুরে রামগড় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দীন এ তথ্য নিশ্চিত করেছন। এর আগে শুক্রবার (০৬ মে) অভিযান চালিয়ে রামগড় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দীন ওই দুই ব্যবসায়ীকে এ জরিমানা করেন।

জানা গেছে, ভোজ্যতেলের অবৈধ মজুদের সংবাদ পেয়ে রামগড়ের সোনাইপুল বাজারের মেসার্স খাঁন ট্রেডার্সে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ওই প্রতিষ্ঠানের মালিক ফজলুল করিমের ৪টি গুদামে ৫৭ হাজার লিটার সয়াবিন তেল পাওয়া যায়। কোনো ধরনের ডিলিং লাইসেন্স ছাড়া বাজারে কৃত্রিম সঙ্কট সৃষ্টি করে অধিক মুনাফার জন্যই এভাবে তেল মজুদ করা হয়েছে। একই বাজারের মেসার্স আলমগীর স্টোর নামে আরেকটি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানেও অনুরুপ অভিযান চালিয়ে সয়াবিন তেলের অবৈধ মজুত পাওয়া যায়।

রামগড় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দীন জানান, ওই ব্যবসায়ীর কোনো ডিলার লাইসেন্স নেই। লাইসেন্স ছাড়া ডিলারশিপের ব্যবসা অবৈধ। বাজারে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে অধিক মুনাফার জন্যই এভাবে বিপুল পরিমাণ তেল মজুত করা হয়েছে। একই বাজারের মেসার্স আলমগীর স্টোর নামে আরেকটি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানেও অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ মজুত পাওয়া যায়।

তিনি আরও বলেন, ডিলার লাইসেন্স ছাড়া ভোজ্য তেলের ডিলার হিসেবে ব্যবসা পরিচালনা করা এবং সয়াবিন তেলের অবৈধ মজুতের অপরাধে মেসার্স খাঁন ট্রেডার্সকে ১ লাখ টাকা এবং মেসার্স আলমগীর স্টোরকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ