২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কলাপাড়ায় আনসারদের সাথে স্থানীয়দের সংঘর্ষে নারীসহ আহত ৯

পটুয়াখালী প্রতিনিধি :: পটুয়াখালীর কলাপাড়া পৌরশহরের নাচনাপাড়া এলাকায় আনসার ব্যাটালিয়ান ক্যাম্পের সামনের বাসীন্দাদের সাথে আনসার সদস্যদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার জুমার নামাজের পরে আনসার ব্যাটালিয়ান ক্যাম্পের সামনের বাসীন্দারা স্থানীয় মসজিদের জন্য বনের দুইটি গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটে। এসময় আনসার ব্যাটালিয়ান সদস্যদের ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও লাঠিপেটায় নারীসহ নয় জন আহত হয়েছে। এরমধ্যে নুর আলম (৪০) ও তানিয়াকে (২৫) কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এদিকে এ ঘটনায় তিন আনসার সদস্য আহতের দাবি করলেও কেউ নাম জানায়নি।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ১৯৮৯ সালে আনছার ক্যাম্প বাউন্ডারির মসজিদটি তাঁরা নির্মাণ করেন। করোনা পরিস্থিতির কারনে ওই মসজিদে বাইরের লোকজনকে নামাজ পড়তে নিষেধ করা হয়। যার প্রেক্ষিতে বেড়িবাঁধের বাইরের বাসীন্দারা একটি পাঞ্জেগানা মসজিদ তৈরি করেন। সেখানকার মসজিদ ঘরের সমস্যার জন্য বনবিভাগের দুইটি গাছ কাটছিল। ওই গাছ কাটতে বাধা দেন আনসার সদস্যরা। এসময় আবুল কালাম নামের এক ব্যক্তিকে ধরে নিয়ে মারধর করা হয়। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত মানুষের আনসার সদস্যদের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়াসহ ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। দ্রুত পুলিশ গিয়ে আহতদের হাসপাতালে পাঠায়। এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হকসহ পুলিশের উর্ধতন কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

আহতরা আনসার সদস্যদের দায়ী করে জানান, বিনা অন্যায়ে তারা একজনকে ধরে নিয়ে মারধর করেছে। একজনকে মসজিদ থেকে বের করে দেয়ারও অভিযোগ করেন। এরপরে আনসার সদস্যরা সবাই একযোগে সাধারণ মানুষের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেছে

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, এখন পরিস্থিতি সম্পূর্ণ শান্ত রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ