২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
আমতলীর গুলিশাখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত দুমকি প্রেসক্লাবের ২৮ বছর পূর্তি উপলক্ষে আলোচনা সভা, কেক কাটা অনুষ্ঠান কাউখালীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু ভোলায় শ্রেষ্ঠ ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা হলেন‌ মো: ইদ্রিস মঠবাড়িয়ায় বাস চাঁপায় নিহত-১, আহত-২llচালক ও হেলপার আটক কাউখালীর ভূমি অধিদপ্তরের তিন কর্মকর্তা জেলার শ্রেষ্ঠ তথ্য মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিবের সাথে বরিশাল প্রকাশক ও সম্পাদক পরিষদের মতবিনিময় প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টা করলেন চেয়ারম্যান বাজারের কীটনাশক ব্যবসায়ী! মাদারীপুরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মৌলিক প্রশিক্ষণ রাতে উড়ে গলাচিপা ভূমি অফিসে জাতীয় পতাকা

কলাপাড়ায় বিয়ের নাটক করে কিশোরীকে এক মাস ধরে ধর্ষণ

পটুয়াখালী প্রতিনিধি :: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় বিয়ের নাটক করে কিশোরীকে একমাস ধরে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এই ধর্ষণে সহায়তা করার অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (৫ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে পৌর শহরের বাদুরতলী স্লুইজঘাট এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত যুবকদের নাম- শাকিল (২৬) ও রিয়াজ (৩০)। এ ঘটনায় সোমবার সন্ধ্যায় সজীবকে প্রধান আসামী করে তিন জনের নাম উল্লেখ করে কলাপাড়া থানায় একটি মামলা ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী ওই কিশোরী।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২ মার্চ ওই কিশোরীর শ্লীলতাহানি করলে সজিবের নামে কলাপাড়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। মাতৃ-পিতৃহীন কিশোরীকে দেখার মতো কেউ না থাকায় ওই দিনই স্থানীয় চৌকিদারের সহয়তায় নিজ গ্রামের বাড়ি বাইনতলায় ফিরে যান তিনি। এরপর সজিব প্রায়ই তার গ্রামের বাড়ি যাওয়া আসা শুরু করে। এর এক পর্যায়ে গত ৭ মার্চ সজিব ওই কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কলাপাড়া পৌর শহরের একটি ভাড়া বাসায় নিয়ে যান। পরে ওইদিন রাতেই শাকিল ও রিয়াজের সহায়তায় মিথ্যা বিবাহের আয়োজন করেন সজিব। এ ঘটনার পর সজিব প্রায় একমাস যাবৎ ওই কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। সর্বশেষ গত ১ এপ্রিল ওই কিশোরী সজিবের কাছে বিয়ের কাবিননামা চাইলে তিনি তাকে আবারও জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। একইসঙ্গে ভুক্তভোগী কিশোরী যেন পালাতে না পারে সেজন্য শাকিল ও রিয়াজ সার্বক্ষণিক নজরদারীতে রাখেন।

এ বিষয়ে কলাপাড়া থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সকালে গ্রেফতারকৃতদের আদালতে সোপর্দ করলে বিজ্ঞ আদালত তাদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

 

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ