২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

কলাবাগানে মিললো জুয়েলের বিক্ষত লাশ

জাহিদ হাসান : একটি কলাবাগান থেকে বাক-প্রতিবন্ধী ভ্যান চালক জুয়েল বেপারী(৩২) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার (৪ এপ্রিল) সকালে মাদারীপুর সদর উপজেলার পেয়ারপুর ইউনিয়নের গাছাবাড়ীয়া গ্রামের দালাল বাড়ীর পিছনে কলাবাগান থেকে উদ্ধার করে লাশটি। নিহত জুয়েল বেপারী সদর উপজেলার গাছবাড়ীয়া এলাকার আচমত আলী বেপারীর ছেলে।
পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, গত দুইদিন আগে গাছবাড়ীয়া একটি বিয়ে বাড়ীতে নাচগান করে এবং পরেদিন শনিবার একই বাড়ীতে খাবারের অনুষ্ঠান শেষে রাত ১২টার দিকে মস্তফাপুর বাসস্টান্ড আবুল হোটেল থেকে ৪টা রুটি ও দুটি ডিম বাজি নিয়ে যায় তখন সাথে কয়েকজন লোক ছিল। ভোর রাতে নামাজ পড়তে এসে স্থানীয় একব্যক্তি রাস্তার পাশে একটি ভ্যান দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ স্থানীয় গ্রাম পুলিশের হেফাজতে রাখতে বলে। এর এক ঘন্টা পর একই এলাকার আব্দুল হাই বেপারীর (দালাল বাড়ী) বাড়ীর পিছনে কলাবাগানে জুয়েলের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে শরীরের বিভিন্ন স্থান ছুরি আঘাতসহ লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠায়।
উল্লেখ্য’ এলাকায় আদিত্যপত্র বিস্তার নিয়ে প্রায় সংঘর্ষের ঘটনা হয়ে থাকে, পুলিশের মামলা ছাড়াও দুইপক্ষের একাধিক মামলা রয়েছে মাদারীপুর সদর মডেল থানায়।
আবুল হোটেলের কর্মচারি তোতা জানান, গতকাল আমার কাছ থেকে গাছাবাড়ীয়ার খোকন ৪টি রুটি ও ২টি ডিম বাজি নিয়ে গেছে সেসময় ঔ ভ্যান চালক দোকানের সামনে ভ্যানের উপরে বসা ছিল এবং নাস্তা নিয়ে তার ভ্যানেই তারা চলে যায়।
নিহত জুয়েলের বাবা আছমত বেপারী ফোনে জানান, আমার ছেলের কোন শত্রু নাই,আমার আছে, তাই হয়তো আমার ছেলেকে মেরে ফেলেছে। আমি যশোর আছি মাদারীপুর এসে থাকায় অভিযোগ করবো।
মাদারীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর সার্কেল) এহসানুর রহমান ভূইয়া জানান, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছি। এছাড়া আমরা প্রাথমিকভাবে ধারনা করছি এই ছেলেটিকে অন্য কোন স্থানে রেখে মৃত্যু নিশ্চিত করে এখানে ফেলে রাখা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email