২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
ট্রাকের চালক-হেলপার হ/ত্যাঃ মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার মাদারীপুরে সিএসএস এর স্থপতি স্বর্গীয় রেভারেন্ড পল এর স্মরণে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প নবজাতককে হাসপাতালে রেখে বাবা-মা লাপাত্তা তিনমাসে ১৪৩ রোহিঙ্গার হাতে বাংলাদেশি পাসপোর্ট কুয়াকাটায় ভাঙ্গা সেতু পরিদর্শন করলেন ইউএনও গলাচিপায় ১ সন্তানের জননীকে মধ্যযুগীয় কায়দায় মারধর হাসপাতালে ভর্তি নান্দনিক সংস্কৃতি বিকাশের জন্যে মাতৃভাষার চর্চা বাড়াতে হবে- লায়ন গনি মিয়া বাবুল বরিশালে আইপিডিসির শাখা উদ্বোধন সিলেটে শবে বারাতকে কেন্দ্র করে মাংসের দাম বৃদ্ধিতে বিরক্ত ক্রেতারা মহিমান্বিত রাত পবিত্র শব-ই-বরাতের ফজিলত, করণীয় ও বর্জনীয়

কুয়াকাটায় জালপাতা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৮

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

হোসাইন আমির,কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি॥
কুয়াকাটার লতাচাপলী ইউনিয়ানে মাইটভাংগা স্লুইজগেটে জাল পাতার আধিপত্যকে বিস্তার করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ৮ জন আহত হয়েছে। শনিবার দুপুরের বাকবিন্ডার এক পর্যায়ে সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়লে মহিপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। আহতরা হলেন, আলতাফ হাওলাদার (৫৫), অপু গাজী (২৬), ইমন (২২), ওহাব গাজী (৪১), শামিম খান (৩৪), ফরিদ (২৬), নেছার (১৯), হাসান (২০)।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, দীর্ঘ দিন ধরে মামা আলতাফ হাওলাদার ও ভাগ্নে মোশারেফ অবৈধভাবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের স্লুইজগেট দখল করে মাছ ধরতো। সম্প্রতি আলতাফ হাওলাদারকে উৎখাত করে অপু গাজী স্লইজগেটে জাল পেতে মাছ ধরে। শনিবার সকালে কে বা কারা অপু গাজীর জাল কেটে দেয়ায় আলতাফ হাওলাদার ও তার ছেলেদের দায়ী করে গালিগালাজ করে। পরবর্তীতে আলতাফ হাওলাদারের ছেলে নেছার পানি আনতে গেলে তাকে মারধর অপু গাজী। এনিয়ে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পরলে দু’গ্রুপের ৮ জন আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে তুলাতলী হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়।পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য অপু গাজী ও ফরিদকে কলাপাড়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অপরদিকে প্রতিপক্ষের নেছার ও হাসানকে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে আহতদের পরিবার জানিয়েছে।

এ ব্যাপারে মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.মনিরুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সংঘর্ষের ঘটনা শুনে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সর্বশেষ