১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

খালে দাঁড়িয়ে আছে সেতু, নেই চলাচলের সড়ক !

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

হারুন অর রশিদ, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।

বরগুনার আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নে পূর্বচিলা গ্রামের আক্কাচ খানের বাড়ীর পিছন দিয়ে বয়ে গেছে হাইচাবুনিয়া খাল। এই খাল পারাপারের জন্য স্থানীয় বাসিন্দাদের সুবিধার্থে সরকারীভাবে একটি সেতু নির্মাণ করা হলেও নেই কোন সংযোগ সড়ক। সংযোগ সড়কের অভাবে বর্ষা মৌশুমে প্রতিদিন দুই গ্রামের বাসিন্দা ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ঝুঁকি নিয়ে কাঁদা পানিতে ভিজে এ সেতু পার হওয়ায় চরম দূভোর্গে পোহাতে হচ্ছে।

ভূক্তভোগী গ্রামবাসীদের অভিযোগ, সেতুটি নির্মাণের পর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অবহেলা ও ঠিকাদার সেতুর দুই পাশে সংযোগ সড়কে মাটির কাজ না করায় বর্তমানে সেতুটি দিয়ে চলাচল করতে এলাকাবাসীর অসুবিধা হচ্ছে। এলাকাবাসীর দূর্ভোগ লাগবে জনস্বার্থে দ্রুত সেতুটির দুই পার্শ্বের সংযোগ সড়কের মাটির কাজ করা প্রয়োজন।

জানাগেছে, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সেতু/ কালভার্ট নির্মাণ প্রকল্পের অর্থায়নে উপজেলা ত্রাণ শাখার বাস্তবায়নে উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের আক্কাচ আলী খানের বাড়ীর পিছনের হাইচাবুনিয়া খালের’ উপর ২৪ লক্ষ ৪৫ হাজার ৯৮৫ টাকা ব্যায়ে ৩২ ফুট দৈর্ঘ্যর একটি আরসিসি ঢালাইয়ের পাঁকা সেতু নির্মাণ করা হয়। প্রায় ৫ বছর পার হলে চললেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সেতুটির দুই পাশের সংযোগ সড়কের মাটির কাজ না করায় সেতুটি খালের পানি মধ্যে দাঁড়িয়ে আছে। বর্ষা মৌশুমে খালে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ওই এলাকার দুটি গ্রামের লোকজন চরম ঝুঁকি নিয়ে পানিতে ভিজে সেতুটি পারাপার হচ্ছে। শিক্ষার্থীরা পারাপার হতে গিয়ে কাদা পানিতে পড়ে বই-খাতা, জামা-কাপড় নষ্ট করে ফেলছে।

পূর্ব চিলা গ্রামের বাসিন্দা স্থাণীয় মুদি মনোহরদি ব্যবসায়ী মোঃ জিয়াউর রহমানসহ বেশ কয়েকজন ভূক্তভোগীরা জানান, সেতুটি নির্মাণ করে ঠিকাদার দুই পাশের সংযোগ সড়কে মাটি না দেয়ার কারনে এ সেতুটি পার হতে এখন অনেক সমস্যা হচ্ছে। সবচেয়ে বেশী ভোগান্তিতে পড়েছে শিক্ষার্থী ও মহিলারা। ভোগান্তি লাগবে দ্রুত সেতুর দুই পাশের সংযোগ সড়ক নির্মাণের দাবী জানাই।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ মফিজুর রহমান জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। আমি ৭ মাস পূর্বে আমতলীতে যোগদান করেছি। সেতু নির্মাণ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে ডেকে অচিরেই সংযোগ সড়ক নির্মাণ করার ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

সর্বশেষ