৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
আমতলী থানার ওসি একেএম মিজানুর রহমান জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত গলাচিপায় এ্যাম্বুলেন্স সেবায় চলছে রমরমা ব্যবসা। ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর চরকাউয়া থেকে বাস চলাচল শুরু পটুয়াখালী জেলা পরিষদের আয়োজনে বীর মুক্তিযোদ্ধা, আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ ও ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে চেক প্রদান আমতলী পৌরসভায় ৪৬২১ জন হতদরিদ্রদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার স্ত্রী-বোনের টাকায় ট্রাক্টর কিনলেন পলাশ গলাচিপায় ঐতিহ্যবাহী গ্রামীন শিল্প হোগল পাতা বিলুপ্তির পথে ব্যবসায়ী নাজমুল সাদাতের পিতার জানাজা সম্পন্ন ব্যবসায়ী নাজমুল সাদাতের পিতার জানাজা সম্পন্ন মাহাফুজুর রহমানের "স্বপ্নে দেখা সেই মেয়েটি" লাজুক

গলাচিপায় ঠিকাদারকে মারধর করায় ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

তারিখঃ ১৭ জুন ২০২২

গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ
পটুয়াখালীর গলাচিপায় ঠিকাদার মো. আবু তালেব সরদার (৪৬) কে মারধর করায় আদালতে ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার ঠিকাদার মো. আবু তালেব সরদার বাদী হয়ে গলাচিপা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নম্বর সি,আর ২২৫/২০২২। আসামীরা হলেন আনোয়ার চৌকিদার, মো. জাহাঙ্গীর তালুকদার, বাহাদুর তালুকদার, জাকির চৌকিদার, মামুন তালুকদার, আমির তালুকদার, আবুল হোসেন তালুকদার, জসিম তালুকদার, বশার তালুকদার, রাশেদুল তালুকদার, মিলন তালুকদার, সুমন তালুকদার এবং নাসির তালুকদার। গলাচিপা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পটুয়াখালী পুলিশ ব্যুরোকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেন। উল্লেখ্য মামলা সূত্রে ও মামলার বাদী আবু তালেব সরদার জানান, আমি একজন লাইসেন্সধারী ১ম শ্রেণির ঠিকাদার। আমার প্রতিষ্ঠানের নাম তামিম এন্টারপ্রাইজ। আমি এলজিইডির মাধ্যমে গোলখালী ইউনিয়নের উন্নয়নমূলক কাজ করে আসছি। অনেক আগে থেকেই আসামীরা আমার কাছে চাঁদা দাবী করে আসছিল। চাঁদা না দিলে কাজ করতে দিবে না। আমি চাঁদা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে গত ৫ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকাল আনুমানিক ৫ টার দিকে আমার বসত বাড়ীর পূর্ব পাশের ওয়াপদার রাস্তার বাহির পাশে ছাড়া বাড়ীর ভিটায় একজোটবদ্ধ হয়ে আমাকে মারধর করে। আসামীরা আমার পকেটে থাকা টাকা পয়সা লুট করে নিয়ে যায়। পরে আমি প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে আদালতে মামলা করি। আসামীরা একজোট বদ্ধ, বেজাহানী প্রকৃতির লোক। এলাকার মানুষ তাদের ভয়ে মুখ খুলতে ভয় পায়। এ বিষয়ে গোলখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নাসির উদ্দিন হাওলাদার বলেন, বিষয় আমি শুনেছি। এলাকার উন্নয়নের সার্থে দু’পক্ষ ডেকে মীমাংসার ব্যবস্থা করব। পটুয়াখালী পুলিশ ব্যুরোর এসআই আবদুল রব জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রতিবেদন দিবেন বলে জানান।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ