৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

গলাচিপায় সরকারী ঘরের আশায় দিন গুণছে জেলে পরিবার

তারিখঃ ১১ জুন ২০২২

সঞ্জিব দাস, গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ
পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার গোলখালী ইউনিয়নের চরহরিদেবপুর গ্রামের জেলে জাকির হোসেন হাওলাদার (৪৭) এর পরিবার সরকারী একটি ঘর পাওয়ার আশায় দিন গুণছে। স্বপ্ন দেখছে নতুন ঘরের থাকার। বর্তমানে জেলে পরিবারটি মানবেতর জীবনযাপন করছে। নিজস্ব দুই শতক জমির উপরে ঝুপড়ি ঘরে চলছে তাদের বসবাস। জানা যায়, গোলখালী ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের মৃত. ছুরত আলী হাওলাদারের ছেলে জাকির হোসেন হাওলাদার। তার পরিবারের সদস্য সংখ্যা ৫ জন। জাকির হোসেন হাওলাদার নদীতে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করছে। শনিবার (১১ জুন) জাকির হোসেন হাওলাদারের সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমার জন্মের পরেই দরিদ্র পরিবারে হাতাশা লেগে রয়েছে। বাবা মারা যাওয়ায় পড়ালেখা করতে পারি নাই। আমাকে ধরতে হয় সংসারের হাল। জীবনে কোন কিছু করতে পারি নাই। মাছ ধরে চলে আমার সংসার। আগের মত নদীতে মাছ পাওয়া যায় না। আবার অবরোধের সময় না খেয়ে থাকার মত অবস্থা হয় আমাদের। বাবার রেখে যাওয়া দুই জমিতে কোন রকম ছাপরা দিয়ে থাকি। ঝড় বৃষ্টি এলেই অন্য মানুষের ঘরে আশ্রয় নিতে হয়। জানি না আল্লাহ্ কবে এ থেকে আমাদের বাঁচাবেন। আমি সরকারী একটি ঘর পেলে নতুন ঘরে থাকার স্বপ্ন পূরণ হতো আমার। জাকির হোসেন হাওলাদারের স্ত্রী ছায়েরা বেগম (৪০) জানান, আমার স্বামীর রোজগারে আমাদের ৫টি জীবন চলে। ভাংগা ঘরের ভিতর পলিথিন দিয়ে থাকি। বৃষ্টির সময় অন্যের ঘরের বারান্দায় গিয়ে আশ্রয় নিতে হয়। আমরা সরকারি একটি ঘরে পেলে ভাংগা ঘরে থাকার কষ্ট দূর হতো। এ বিষয়ে ওই ওয়ার্ডের মেম্বর মো. দুলাল প্যাদা বলেন, আসলেই জাকির হোসেনের পরিবার মানবেতর জীবন যাপন করছেন। সরকারীভাবে তাদেরকে একটি ঘর দিলে পরিবারটির অনেক উপকার হবে। গোলখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি খালেক মাস্টার বলেন, জাকির হোসেনের বাবার দেয়া অল্প কিছু জমি আছে। জেলের কাজ করায় ঘরটাও ঠিকমত তুলতে পারে নাই। সরকারীভাবে একটি ঘর তাদের খুব প্রয়োজন। গোলখালী ইউপি চেয়ারম্যান মো. নাসির উদ্দিন হাওলাদার বলেন, জাকির হোসেন হাওলাদারের পরিবার আসলেই অসহায়। সরকারীভাবে একটি ঘর পেলে তারা সুন্দরভাবে জীবন যাপন করতে পারবে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ