২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গলাচিপা উপজেলা নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে ১৫ জন ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত থাকবেন

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সঞ্জিব দাস,গলাচিপা, পটুয়াখালী, প্রতিনিধি
জমে উঠেছে পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রচার। ২১শে মে’র ভোট ঘিরে দিনরাত চলছে গণসংযোগ, মাইকিং ও উঠান বৈঠক। ভোটারদের রয়েছে ভয়ও সেজন্য মাঠে উপস্থিত থাকবেন ১৫ জন ম্যাজিস্ট্রেট ও পর্যাপ্ত পরিমান আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এই উপজেলা মোট ১২ টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত।
এই উপজেলায় ভোট কেন্দ্র রয়েছে মোট ৮০টি, ৮০টি ভোট কেন্দ্রই ঝুকিপূর্ণ বলে স্থানীয় ভোটারদের দাবি। ভোটের দিন ১৫ থেকে ২০ জন ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত থাকবে গলাচিপা উপজেলায়, এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন সেখানকার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মহিউদ্দিন আল হেলাল । আইনশৃঙ্খলা বিষয় জানতে চাইলে নির্বাহী কর্মকর্তা মুঠোফোনে সা়ংবাদিক সঞ্জিব দাস কে বলেন, জাতীয় নির্বাচনে ৩ জন ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত ছিলেন, আর উপজেলা নির্বাচনে ১৫ জন ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত থাকবেন এবং নির্বাচন সুষ্ঠু করতে যা প্রয়োজন তা ব্যবস্থা করা হবে।সজাগ থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
এদিকে কয়েকজন প্রার্থীর বিরুদ্ধে ভোটের মাঠ দখল করার অভিযোগ উঠেছে, এঁরা বিভিন্ন পেশিশক্তি ব্যবহার করে ভোটের মাঠ দখল করতে পারে বলে জানিয়েছে সেখানকার নিরীহ প্রার্থীরা। এ বিষয় নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, যেখানেই আইনশৃঙ্খলার অবনতি হবে সেখানেই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে যা প্রয়োজন তাই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।গলাচিপায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রত্যেকটি পদে চারজন করে মোট ১২ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন এবং প্রত্যেকের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করে ছিলেন নির্বাচন অফিস সূত্রে এ তথ্য জানা যায়। এর মধ্যে অনেকেই ভোটের মাঠ থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়েছেন বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। বর্তমানে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে মাঠে আছেন বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ওয়ানা মার্জিয়া নিতু। তিনি গলাচিপা পৌরসভার সাবেক মেয়র মরহুম আব্দুল ওহাব খলিফার মেয়ে এবং বর্তমান পৌরমেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আহসানুল হক তুহিনের বোন।ওয়ানা মর্জিয়া’র প্রতীক হচ্ছে আনারস। নির্বাচনের বিষয় জানতে চাইলে, ওয়ানা মর্জিয়া নিতু মুঠোফোনে বলেন,গলাচিপা উপজেলায় যদি সুষ্ঠু নির্বাচন হয় তাহলে আমি শতভাগ নির্বাচিত হবো। আমার বাবা একজন স্বচ্ছ পরিচ্ছন্ন ও সাহসী রাজনীতিবিদ ছিলেন, আমার ভাই তিনিও সকল জনগণের পাশে থেকেই রাজনীতি করে আসছেন, আমাদের রাজনীতি হচ্ছে জনগণের জন্য। জনগণের পাশে থেকে সেবা করা। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে অবশ্যই আমার ভোটাররা আমাকেই বেছে নিবেন।

চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে মাঠে আছেন মু: শাহিন সাহ। যিনি বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। তার প্রতীক হচ্ছে ঘোড়া। ভাইস চেয়ারম্যানে পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেনঃ মোঃ রিফাত হাসান (সজিব) তার প্রতীকঃ টিউবওয়েল। মোঃ রেজাউল কবির (মোল্লা) ভাইস চেয়ারম্যান পদে তার প্রতীকঃ তালা। ফরিদ আহসান (কচিন) ভাইস চেয়ারম্যান পদে উড়োজাহাজ প্রতীকঃ নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

মোঃ নিজামুদ্দিন (তালুকদার) ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনি চশমা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তহমিনা আক্তার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তার প্রতীক হচ্ছে ফুটবল মার্কা। হেলেনা বেগম মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে কলস প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মোসম্মৎ শিরিন নাহার আখতার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তার প্রতীক হচ্ছে ফুলের টব।

সর্বশেষ