২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
রাঙ্গাবালীতে রাসাদ হত্যাকারীর ফাঁ*সির দাবিতে মানববন্ধন হেরাররশ্মি’র বার্ষিক শিক্ষাসফর ও শিল্পী সমাবেশ অনুষ্ঠিত পটুয়াখালীতে মন্দিরে চুরি, পিতলের প্রতিমা ও স্বর্ণালংকার লুট নলছিটিতে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ আহত ৩ নাজিরপুরে ভ্যান চালিয়ে বিএ পাশ করলেন হায়দার আলী তালতলীতে খালাকে হত্যার পর কানের রিং বিক্রি করে খুনিকে টাকা দেয় ভাগ্নে পটুয়াখালী পৌর নির্বাচনে প্রতীক পেয়েই প্রচারণায় প্রার্থীরা বরিশালে বুফে রেস্তোরাঁয় আগুন, আহত বিএম কলেজের ছাত্রী বরিশালের বাজারে রমজানের আগেই বেড়েছে নিত্যপণ্যের দাম উজিরপুরে মাদ্রাসার পরিত্যক্ত ঘর থেকে অজ্ঞাত বৃদ্ধ’র মরদেহ উদ্ধার

গাজীপুরে আকাশজুড়ে বাহারি রঙের ঘুড়ির মেলা

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

রিপোর্ট অলিউল্লাহ: বাহারি ঘুড়িতে ছেয়ে গেছে আকাশ।লাল, নীল, সবুজ, হলুদ, বেগুনি নানা রঙের ঘুড়ি আকাশে উড়ছে।দেখে মনে হচ্ছে, রঙের মেলা বসেছে আকাশজুড়ে।এই করোনাকালীন সময়ে বিনোদনের খোঁজে আবার যেন বাঙালি সংস্কৃতিতে ফিরে এসেছে হারিয়ে যাওয়া লোকায়ত সংস্কৃতি ঘুড়ি উৎসব।সারা দেশের মতো গাজীপুরের মানুষও মেতে উঠেছেন ঘুড়ি উৎসবে। বিভিন্ন পাড়া, মহল্লায় এখন কেবলই শুধু রঙবেরঙের ঘুড়ি নীল আকাশে।শিশু-তরুণ-যুবক এমনকি মাঝ বয়সীরাও বাদ যায়নি এই ঘুড়ি ওড়ানো থেকে।দিন-রাত আকাশে শোভা পাচ্ছে নানা রঙের ঘুড়ি।বিশেষ করে রাতের আকাশে লাইটিং ঘুড়ির ঝলমলে আলো দেখে মুগ্ধ হচ্ছেন এলাকার মানুষ।
ঘুড়িপ্রেমীদের মতে, প্রকৃতি যখন জেগে উঠতো, তখন গ্রামের বিলগুলোতে চলতো ঘুড়ি উড়ানোর প্রতিযোগিতা।প্রত্যেক কিশোরের হাতে থাকতো লাটাই ও সুতা। আকাশে উড়তো বিচিত্র নামের রঙিন ঘুড়ি। তার সঙ্গে প্লাস্টিকের বস্তা থেকে তোলা পাতলা সুতা কিংবা বেত ও বাঁশের পাতলা চ্যাটা একটি ধনুকের মতো ছড়ের সঙ্গে বিশেষভাবে বেঁধে ঘুড়িতে জুড়ে দিলে উড়ন্ত ঘুড়ি থেকে সুরেলা শব্দ শোনা যেতো।একে ডাক ঘুড়ি বা বেনা ঘুড়ি বলা হতো। ইদানিং অনেকেই বাড়ির ছাদে নিজেদের ঘুড়ি উড়ানোর ছবি ফেসবুকে পোস্ট করছেন।এসব ছবি দেখে অনেকেই ফিরে যাচ্ছে সেই পুরোনো স্মৃতির দিকে।এখনকার চিত্র দেখলে মনে হচ্ছে, সেই ঘুড়ি ওড়ানো বিকেলগুলো হয়তো আজ আবারও ফিরে এসেছে। গ্রামে-গঞ্জে এখন ঘুড়ি উড়ানোর সুন্দর দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। শিশু-কিশোররা উড়াচ্ছে ঘুড়ি।বাতাসে দুলতে দুলতে ভূপাতিতও হয় ঘুড়িগুলো।

শিশু-কিশোররা রাতে উড়ানোর জন্য ঘুড়িতে যুক্ত করেছে ব্যাটারি চালিত বাতি, যা রাতে উড়ানো ঘুড়িতে জ্বলছে।বড়দের কেউ কেউ ঘুড়ি বানাতে পারলেও শিশু-কিশোররা বেশিরভাগই ঘুড়ি কিনে উড়িয়ে থাকে।গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুড়ি তৈরির ধুম পড়েছে।এ কারণে গ্রামের ঘুড়ি তৈরিতে যুবকরা ব্যস্ত সময় পার করছে। তাদের কাছেই এখন মিলছে ঘুড়ি।সাধারণত যেকোনো ডিজাইনের একটি ঘুড়ির দাম ১০০ থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত। তারা জানান, এখন প্রচুর পরিমাণে ঘুড়ি বিক্রি হচ্ছে। কারণ হিসেবে তারা বলছেন, করোনাভাইরাসে স্কুল বন্ধ থাকায় শিশু-কিশোররা ঘরবন্দি হয়ে পড়েছে।
তাই বিকেলে একটু আনন্দ পেতেই তারা ঘুড়ি উড়াতে মেতে উঠছে।

সর্বশেষ