২৬শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গৌরনদীতে নির্বাচনী সহিংসতায় ২ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় পৃথক মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনী সহিংসতায় ককটেল হামলায় ২ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় পৃথক মামলা দায়ের হয়েছে। পাশাপাশি একটি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ৩ জন গ্রেফতার করা হয়েছে, তবে অপর হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্তরা এখনও অধরা রয়ে গেছেন।

স্থানীয় ও থানা পুলিশ সূত্রে পুলিশ জানায়, ইউপি নির্বাচনে জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টাকে কেন্দ্র করে গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের কমলাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে গত সোমবার (২১ জুন) দুপুরে ককটেল হামলায় মৌজে আলী মৃধা (৬৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত এবং অপর ৫ জন আহত হয়।

একই দিন সন্ধ্যায় একই ইউনিয়নের পাঙ্গাসিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ফলাফল ঘোষণার পর সদস্য প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন মৃধার বিজয় মিছিলে ককটেল হামলার অভিযোগ ওঠে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ওই মামলায় আবু বক্কর (২৭) নামে একজন নিহত এবং আরও ২ জন আহত হয়।

মৌজে আলী নিহত হওয়ার ঘটনায় মঙ্গলবার তার ছেলে নজরুল মৃধা বাদী হয়ে ২১ জনের নামোল্লেখ এবং অজ্ঞাতপরিচয় ৭০ থেকে ৮০ জনকে আসামি করে গৌরনদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলার নামীয় ৩ আসামি ফিরোজ মৃধা, মাহফুজুর রহমান ইমন এবং নয়ন মৃধা নামে ৩ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

তবে বাদীর অভিযোগ তার দেওয়া আসামিদের নাম পরিবর্তন করে মামলা নিয়েছে থানা পুলিশ। যদিও এ ব্যাপারে গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) মো. তৌহিদুজ্জামান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন বাদীর সঙ্গে একাধিকবার আলোচনা করেই মামলায় ২১ জনের নামোল্লেখসহ আরও ৭০/৮০ জনকে অজ্ঞাতপরিচয় আসামি করা হয়েছে। এখন যদি তিনি (বাদী) অন্যকিছু বলে থাকেন তাহলে তিনি আদালতে লিখিত আবেদন করতে পারেন।

অপরদিকে আবু বক্কর নিহত হওয়ার ঘটনায় তার বাবা আনজু ফকির বাদী হয়ে অর্ধ শতাধিক ব্যক্তির নামে মঙ্গলবার দুপুরে গৌরনদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তবে এই মামলার কোনো আসামি পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি। হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন নিহতদের স্বজনরা।

দুপুরে বরিশাল মর্গে ওই দুই জনের মরদেহ ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে তাদের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন গৌরনদী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. তৌহিদুজ্জামান।

আর দুই হত্যা মামলার আসামিদের গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন বরিশাল রেঞ্জ ডিআইজি কার্যালয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শফিকুল ইসলাম।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ