২৮শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
রাজাপুরের গালুয়ায় বৃদ্ধ স্বামী স্ত্রীকে কুপিয়েছে সন্ত্রাসীরা  বিতর্কিত শিক্ষা ব্যাবস্থা বাতিল ও পাঠ্যবই সংশোধনের দাবিতে মানব বন্ধন শিক্ষার গুরুত্ব কেবল আ’লীগ সরকারই দিচ্ছে-পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আওয়ামীলীগ ও কমিনিউটি পুলিশিং এর ওয়ার্ড সেক্রেটারী গ্রেফতার বরিশালে দুই নারীর মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনে পুলিশ ! বরিশালে ট্রলির নিচে পড়ে ইজিবাইকের চালক নিহত তালতলীতে ২৪টি পরিবারের খোলা আকাশের নীচে জীবনযাপন কলাপাড়া জম কালো আয়োজনে রিপোর্টার্স ক্লাব'র ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন। পবিত্র কোরআন শরিফ পোড়ানোর প্রতিবাদে তালতলীতে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত বরিশালে পাংশা গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ১

গ্লোবাল আইটি চ্যালেঞ্জে গুড অ্যাওয়ার্ড পেলেন গলাচিপার শিহাব


সজ্ঞিব দাস, গলাচিপা(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি।
যুব প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা গ্লোবাল আইটি চ্যালেঞ্জ (জিআইটিসি) ২০২১-এ সাফল্য অর্জন করেছে নিয়ামুর রশিদ শিহাব।সে শারীরিক প্রতিবন্ধী হিসেবে ই-টুল এক্সেল পরীক্ষায় গুড অ্যাওয়ার্ড (৩য় স্থান)পেয়েছে। প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের ৪ জন প্রতিযোগী অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে।
বুধবার ১৩ টি দেশের ৩৮৫জন শারীরিক, দৃষ্টি, বাক ও শ্রবণ এবং এনডিডি প্রতিবন্ধী প্রতিযোগীদের নিয়ে ফাইনাল রাউন্ডের পরীক্ষা অনলাইনের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার কোরিয়া থেকে জুম অ্যাপসে ফলাফল ঘোষনা করা হয়।জানা গেছে, শিহাবের বাড়ি পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায়।সে বরিশাল সরকারী পলিটেকনিক ইনষ্টিটিউটের কম্পিউটার ডিপার্টমেন্টের ৩য় পর্বের শিক্ষার্থী। গলাচিপা মহিলা ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক ও সাংবাদিক মোঃ হারুন অর রশিদ এবং রতনদী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা লুৎফুন নাহার এর ছেলে। শিহাব তিন ভাই-বোনের মধ্যে বড়।গুড অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত শিহাব জানান, বাবা-মা সহ এই সাফল্য অর্জনের পিছনে যাদের অবদান আছে সকলের প্রতি আমি চিরকৃতজ্ঞ। এই সাফল্য শুধু আমার একার নয়, এই সাফল্য আমাদের দেশের। অ্যাওয়ার্ড অর্জনের মাধ্যমে প্রমানিত হলো প্রতিবন্ধীরাও দেশের জন্য সুনাম বয়ে আনতে পারে। এসময় শিহাব দেশবাসীর কাছে ভবিষ্যতে আরও উন্নতির জন্য দোয়া চেয়েছেন।জিআইটিসির মূল আয়োজক প্রতিষ্ঠান রিহ্যাবিলেটেশন ইন্টারন্যাশনাল কোরিয়া। জিআইটিসি ২০২১’র আয়োজক দেশ ছিল মায়ানমার। কিন্তু কোভিড ১৯ এর কারণে তা সরাসরি আয়োজন করা সম্ভব না হওয়ায় কোরিয়া থেকে অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয়।
এ প্রতিযোগিতার জন্য এই বছরের ১৭ জুন প্রিলিমিনারি রাউন্ডের মাধ্যমে বাছাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। প্রিলিমিনারি রাউন্ডে ১৩টি দেশের ৬০০ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে।প্রিলিমিনারি রাউন্ড থেকে ৩৮৫জন প্রতিযোগী ৪ টি ক্যাটাগরি(শারীরিক,দৃষ্টি, বাক ও শ্রবণ এবং এনডিডি) অনুসারে ফাইনাল রাউন্ডে অংশগ্রহনের সুযোগ পায়। এদিকে প্রিলিমিনারী পরীক্ষার জন্য সারা বাংলাদেশ থেকে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মধ্যে থেকে সেরা ২০জন বাছাই করা হয়। ঢাকা প্রধান কার্যালয়সহ বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের ৭টি আঞ্চলিক কার্যালয়ে স্বাস্থ্যধি মেনে প্রিলিমিনারী প্রতিযোগিতায় বাছাইকৃত ২০ জন অংশগ্রহন করে এবং ১৯ জন ফাইনাল রাউন্ডের জন্য নির্বাচিত হয়।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ