২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

চরফ্যাসনে পিয়নের নেতৃত্বে কলেজ ছাত্রলীগ নেতার উপর হামলা

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

চরফ্যাসন (ভোলা)সংবাদদাতা : ভোলার চরফ্যাসনের শশীভূষণ থানাধীন হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাজারে সিনিয়র জুনিয়র নিয়ে তর্ককে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে ২জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়ে চরফ্যাসন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি চেয়ারম্যান বাজার অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম রুবেল বলেন, গত ১২ সেপ্টেম্বর করোনা পরবর্তী সময় কলেজ খোলায় চেয়ারম্যান বাজার অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম কলেজের ছাত্র ছাত্রীরা ক্যাম্পাসে আনন্দ র‍্যালী বের করে, এসময় আমি সহ কয়েকজন সিনিয়র ছাত্র র‍্যালির অদূরে দাড়িয়ে থাকা একই কলেজে অধ্যয়নরত জুনিয়র ছাত্র ইমন, সৌরভ, ও রাফিকে র‍্যালিতে অংশ নিতে বলি। কিন্তু ইমন, সৌরভ ও রাফি অংশ না নেওয়ায় আমার বন্ধু আবদুর রহিম ও আলামিন, তাদেরকে সিনিয়রদের নির্দেশ মানার পরামর্শ দেন। এর সূত্র ধরে, গত রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় চেয়ারম্যান হাট বাজারে হাজারী গঞ্জ ৩ নং ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার ও অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম কলেজের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী জাকির, তার ভাই সেলিম পাটওয়ারী, ভাতিজা ইমন,সৌরভ, রাফি, জাহিদ সহ ১০-১৫ জন মিলে আমার বন্ধু আবদুর রহিম ও আলামিন কে ঘিরে ধরে মারতে উদ্যত হয়। খবর পেয়ে আমি সেখানে গিয়ে সবাইকে বুঝিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করলে হঠাৎ জাকির মেম্বার গং আমার উপর হামলা করে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে বেধড়ক মারধর করে এবং আমার মাথা ফাটিয়ে দেয়।
পরে স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।
একই হাসপাতালে ভর্তি আরেক আহত রবিউল আলম মুন্না বলেন, আমি আহত বন্ধু রুবেলকে হাসপাতালে দেখে বাড়ি ফেরার পথে হাজারী গঞ্জ ৬ নং ওয়ার্ডে রায়হান, ইসমাঈল ও শাকিল ধারালো অস্ত্র নিয়ে আমাকে কুপিয়ে আহত করে।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত জাকির মেম্বারের মোবাইলে যোগাযোগ করলে তার মোবাইল নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।
শশীভূষণ থানার অফিসার ইন চার্জ রফিকুল ইসলাম জানান, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ