২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

টাইমস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর মুজিব কর্নার উদ্বোধন

টিইউবি ফরিদপুর থেকে জুবাইয়া বিন্তে কবিরঃ-  ফরিদপুর জেলার একমাত্র বিশ্ববিদ্যালয় টাইমস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (টিইউবি) এর “মুজিব কর্নার” উদ্বোধন করা হয়েছে। ১৯ সেপ্টেম্বর (সোমবার) বেলা ১০টায় এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থেকে বঙ্গবন্ধু কর্নারের উদ্বোধন করেন কুষ্টিয়া ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক ও প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ জাতীয় কার্যকরী সংসদের সাবেক সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক ও সহ-সভাপতি, জাতীয় শিক্ষক নেতা, লেখক, গবেষক, বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ শিক্ষক সংগঠন স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধিনস্থ শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের মাননীয় সচিব অধ্যক্ষ মোঃ শাহজাহান আলম সাজু।

মুজিব কর্নার এর সার্বক্ষনিক দিকনির্দেশনায় ছিলেন টাইমস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (টিইউবি) এর প্রতিষ্ঠাকালীন চেয়ারম্যান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অন্যতম সহচর, মহান স্বাধীনতার অন্যতম সংগঠক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম শরীফ এম আফজাল হোসেন এর সহধর্মিণী টিইউবি এর বর্তমান সুযোগ্য চেয়ারম্যান বেগম সাখাওয়াত আফজাল ও টিইউবি এর মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এএইচএম আক্তারুল ইসলাম (জিল্লু)। 

এ সময় প্রধান অতিথি প্রিন্সিপ্যাল শাহজাহান আলম সাজু তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশকে জানতে হলে আমাদের অবশ্যই বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর দৃঢ় নেতৃত্বে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি, লাল-সবুজের পতাকা পেয়েছি।
এ “মুজিব কর্নার” এর মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীসহ সবাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে সোনার বাংলা বিনির্মাণে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগ প্রথম ব্যাচের সাবেক কৃতি শিক্ষার্থী, ইবি ছাত্রলীগের একনিষ্ঠ কর্মী, ইংরেজী বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ও টাইমস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এএইচএম আক্তারুল ইসলাম (জিল্লু)।

উক্ত মুজিব কর্নারটির মধ্যে ছোট একটি লাইব্রেরিও রয়েছে। এখানে শতাধিক আলোকচিত্রে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে তুলে ধরা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর জন্ম থেকে মৃত্যু, বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ও ব্যক্তি জীবন, রাষ্ট্র পরিচালনা সব পর্যায়ের ফটো বায়োগ্রাফি দিয়ে কেন্দ্রটি সাজানো হয়েছে। এছাড়া সাল অনুয়ায়ী বঙ্গবন্ধুর জীবন বৃত্তান্ত ছবির নিচে সংক্ষিপ্ত আকারে তুলে ধরা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়টির সুযোগ্য ভাইস-চ্যান্সেলর ও অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি দেশ বরেণ্য শিক্ষাবিদ, গবেষক ও সাহিত্যিক প্রফেসর ড. এএইচএম আক্তারুল ইসলাম (জিল্লু) বলেন, নবনির্মিত এ “মুজিব কর্নার” এ রয়েছে দুর্লভ সব আলোকচিত্র। সেখানে সাদাকালো ফ্রেমে আলো-ছায়ার মধ্যে তুলে ধরা হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। আলোকচিত্রে ফুটে উঠেছে বঙ্গবন্ধুর জন্ম, কৈশর, কলেজ জীবন, ’৫৪ এর নির্বাচন থেকে শুরু করে আন্দোলন সংগ্রাম, দেশ গঠন এবং ঘাতকের বুলেটে রক্তাক্ত আলোকচিত্রগুলো। এছাড়া সেখানে স্থান পেয়েছে স্বাধীনতা ঘোষণাপত্রসহ এ সংক্রান্ত বিভিন্ন দুর্লভ দলিল, দেশি-বিদেশি পত্রিকায় মুক্তিযুদ্ধ সময়কার প্রকাশিত সংবাদের ছবি ও আলোকচিত্র। আরও রয়েছে বঙ্গবন্ধুর হাতে লেখা বেশকিছু চিঠি, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু বিষয়ক বিভিন্ন বই। এখানে আলোকচিত্র ও শিল্পীর কারুকাজে তুলে ধরা হয়েছে বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতার ইতিহাস।

ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এএইচএম আক্তারুল ইসলাম আরো বলেন, ‘এখানে আমরা ব্যক্তি হিসেবে বঙ্গবন্ধুর পথচলা, তাঁর অনন্যতা এবং সাত কোটি বাঙালিকে স্বাধীনতার মন্ত্রে উজ্জীবিত করে একটি স্বাধীন জাতিতে পরিণত করার যে স্বপ্ন, সেটার বাস্তবায়নের সৌন্দর্যকে তুলে ধরতে চেয়েছি আমরা।’

ভিসি বলেন, ‘জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে জাতির পিতা যে অবদান রেখেছেন, সংগ্রাম করে গেছেন, তা মানুষের স্মৃতিপটে তুলে ধরার জন্য আমাদের এ উদ্যোগ। প্রযুক্তির ছোঁয়ায় সুন্দরভাবে কর্নারটি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। টাইমস ইউনিভার্সিটিতে আসা দেশি-বিদেশি লোকজন এ কর্নার পরিদর্শন করে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট, বাঙালি জাতির অর্জন এবং বঙ্গবন্ধুর সম্পর্কে সহজে জানতে পারবেন।’ বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতার আলোকচিত্র এবং ইতিহাসের দুর্লভ দলিল সমৃদ্ধ এ “মুজিব কর্নার” টি ফরিদপুর তথা দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম যা প্রায় এক বছর কাজ করার পর গত ১৯ সেপ্টেম্বর উদ্বোধনের মাধ্যমে সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে।
উদ্বোধন শেষে টাইমস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর শিক্ষার্থীরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনাদর্শের উপর একটি সেমিনারের আয়োজন করে। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ