২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

তালতলীতে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বৃদ্ধাকে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক

বরগুনা প্রতিনিধি :: বরগুনার তালতলী উপজেলার মেনিপাড়া এলাকায় রাতের আঁধারে স্বামী পরিত্যক্তা এক বৃদ্ধাকে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বজলু হাওলাদার (৪০) নামের এক ব্যক্তি ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে স্থানীয়রা তাকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

সূত্রে জানাগেছে, স্বামী পরিত্যক্তা ওই বৃদ্ধা উপজেলার নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের মেনিপাড়া এলাকায় বসবাস করেন। গত ৩মাস ধরে একই এলাকার মোঃ সেকান্দার হাওলাদারের পুত্র বজলু হাওলাদার (৪০) ওই বৃদ্ধাকে বিভিন্ন সময় উত্ত্যক্ত করে আসছিলো। ১০/১২ দিন পূর্বে বজলু হাওলাদার রাতের আধারে ওই স্বামী পরিত্যক্তা বৃদ্ধার বাড়ীতে গিয়ে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তাকে ধর্ষণ করে। মানসম্মানের ভয়ে বিষয়টি বৃদ্ধা এতদিন কাউকে বলেনি। পুনঃরায় গতকাল (বুধবার) রাত ১টার দিকে বজলু হাওলাদার ফের ওই নারীর ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরের মধ্যে ঢুকে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। এসময় তার ডাক চিৎকারে প্রতিবেশী পাশের ঘরের লোকজন ও স্থানীয়রা বৃদ্ধার ঘর থেকে বজলুকে আটক করে তালতলী থানায় খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় আটক বজলু হাওলাদারের বিরুদ্ধে তালতলী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে ওই এলাকার বিভিন্ন মানুষ অভিযোগ করে বলেন, আটক বজলু হাওলাদারের হাত থেকে স্কুল ছাত্রী, গৃহবধূ কেউ রক্ষা পায়নি। পরকিয়াসহ বিভিন্ন অপকর্মের জন্য গত বছর তার বউ বিষপান করে আত্মহত্যা করেছে বলে তারা জানায়।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ কামরুজ্জামান মিয়া মুঠোফোনে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের সত্যতা পাওয়ায় আটক বজলুর বিরুদ্ধে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আগামীকাল (শুক্রবার) ভিকটিম বৃদ্ধাকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ