২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

দশমিনায় ভূমিহীন নারীকে পেটালো সাবেক বন কর্মকর্তা

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

পটুয়াখালী প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর দশমিনা বন বিভাগের সাবেক বন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ভূমিহীন এক নারীকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে। গতকাল সোমবার সকাল ১০টায় হাজিরহাট লঞ্চটার্মিনাল এলাকায় পেটানোর পরে আহত নারীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীর অভিযোগ, দশমিনা উপজেলার সাবেক বন কর্মকর্তা মোঃ হারুন অর রশিদ চাকুরীকালে চরাঞ্চলের বনায়ন ব্যবহার করে গাছ, নল-খাগড়া, মধু, মাছ বিক্রিসহ গরু-মহিষের চারণে অবৈধ অর্থ আদায় করতো। অদূরে খাস জমির বসতি ভূমিহীন মোঃ আলতাফ বিশ্বাস ও মোসাঃ লাইজু বেগম দম্পত্তিসহ সকল ভূমিহীনদের সাথে দূর্ব্যবহার করতো ওই কর্মকর্তা। অনেক দিন আগে ওই কর্মকর্তা ভোলা জেলায় বদলী হয়ে গেছে। সোমবার সকালে নৌকায় আলতাফ চর থেকে হাজির হাট লঞ্চঘাট আসলে তার বন কর্তকর্তা মোঃ হারুন অর রশিদকে দেখিতে পাই। তাকে সালাম দিয়ে জিজ্ঞাসা করি স্যার কি আবার এখানে আসছেন কিনা। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে মারধর গাঁয়ে হাত তোলেন।

এ সময় লাইজু স্বামীকে ছাড়াতে চেষ্টা করলে বন কর্মকর্তা ও তার সহযোগী আঃ জলিল তাকেও পেটালেন এবং তলপেটে লাথি দিলে জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পরেন। আহত লাইজু বেগম বর্তমানে দশমিনা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মেডিকেল অফিসার ডাঃ রাকিব মিয়ার তত্তাবধানে চিকিৎসাধীন আছে।

হাসপাতাল চত্ত্বরে পায়চারি করা বন কর্মকর্তা মোঃ হারুন অর রশিদ স্থানীয় সংবাদকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে জানায়, লাইজুকে চিনেন তবে এ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে বিষয়টি তিনি জানেন না। মারধর ও দেখা হওয়ার বিষয়টিও তিনি অস্বীকার করেন।

তিনি আরও জানান, সরকারের দায়িত্বপালন করেছি, আমার ব্যাক্তিগত কোন ঘটনা নয়। সাবেক চাকুরী স্টেশনের পরিচিতদের দেখলে নিজের পরিবারের মতো মনে করি।

সর্বশেষ