৬ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দোলনা বানাতে গিয়ে গলায় রশি আটকর শিশুর মৃত্যু

 

হারুন অর রশিদ,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ খেলার দোলনা বানাতে গিয়ে গলায় প্লাস্টিকের রশি আটকে ৭ বছরের শিশু কন্যা আমেনা আক্তারের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরণ করেছেন। মর্মান্তিক এমন ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। ঘটনা ঘটেছে বরগুনার আমতলী উপজেলার চাওড়া ইউনিয়নের লোদা গ্রামে বৃহস্পতিবার সকালে।

জানা গেছে, উপজেলার চাওড়া লোদা গ্রামের হেলাল মাতুব্বরের শিশু কন্যা আমেনা তিন বছরের ছোট ভাই রবিউলের জন্য রান্না ঘরের আড়ার সাথে দোলনা বানাচ্ছিল। এমন মুহুর্তে প্লাস্টিকের রশি আমেনার গলায় আটকে যায়। ওই সময়ে ঘরে বাবা হেলাল মাতুব্বর রিকসা চালাতে এবং মা কাজল রেখা অণ্যেও বাড়ীতে ঝিয়ের কাজ করতেছিল। বোনকে ঝুঁলতে দেখে শিশুপুত্র বরিউল কান্নাকাটি করছিল।

শিশু রবিউলের কান্নার শব্দে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে শিশু আমেনার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পায়। পরে তারা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরন করেছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যূ মামলা হয়েছে। শিশু কন্যার এমন মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। শিশু কন্যাকে হারিয়ে পাগলপ্রায় বাবা ও মা।

শিশুর মা কাজল রেখা কান্নাজনিত কন্ঠে বলেন, মোর কি অইবে। মোর সোনার ময়নাডা এইরহম চইল্ল্যা গেল। কেন মুই মানষের মারতে কাম হরতে গেলাম। ও আল্লাহ মোর সোনাডারে মোর কোলে ফিরাইয়্যা দে।

শিশু কন্যার চাচা শহীদুল গাজী বলেন, ভাইয়ের জন্য দোলনা বানাতে গিয়ে শিশু আমেরা রশির সাথে আটকে মারা গেছে।

আমতলী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার বলেন, শিশু কন্যা আমেনা ছোর ভাইয়ের জন্য দোলনা বানাতে গিয়ে গলায় রশি আটকে মারা গেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ