১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

নাজিরপুরে সরকারি গাছ কেটে নিলেন ভাইস-চেয়ারম্যান

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের নাজিরপুরে সিরাজুল হক সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের উত্তর পাশে উপজেলা পরিষদের অভ্যন্তরে প্রায় তিন লাখ টাকা মূল্যের বড় আকৃতির ৬টি চাম্বল গাছ কেটে নিয়েছেন উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান রঞ্জু। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি। গত ৪/৫ দিন ধরে প্রকাশ্যেই তিনি তার লোকজন নিয়ে এ গাছগুলো কেটে নেন। গাছগুলো অবৈধভাবে কাটা হচ্ছে জানতে পেরে বিষয়টি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য গত বৃহস্পতিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে চিঠি দিয়েছেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাষ্টার অমূল্য রঞ্জন হালদার।
তবে উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান রঞ্জু দাবী করেন তিনি স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে গাছগুলো ক্রয় করেছেন।
সিরাজুল হক সরকারি উচ্চ বিদ্যায়ের প্রধান শিক্ষক মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, আমি যতটুকু জানি বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মাণের জন্য ওই গাছ গুলো অপসারন করা প্রয়োজন। আমি ব্যক্তিগত কাজে ঢাকায় থাকায় বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হাসান সরদার আমাকে জানিয়েছেন গাছ গুলো অপসারণের জন্য তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তাকে লিখিত চিঠি দিয়েছেন। তবে কে বা কারা গাছ গুলো কেটেছে সে বিষয়ে আমি অবগত নই। গাছগুলো বিক্রির ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না।
সিরাজুল হক সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক হাসান সরদার জানান, প্রধান শিক্ষকের অনুমতি ক্রমে তিনি গাছ গুলো অপসারণ করার অনুমতি চেয়ে ইউএনও স্যারকে একটি চিঠি দিয়েছি। এর পরে কি হয়ে তা আমার জানা নেই।
এ বিষয়ে জানতে মুঠোফোনে কথা হলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমান বলেন, সিরাজুল হক সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ওই গাছ গুলো অপসারণের জন্য অনুমতি চেয়ে আমাকে কোন চিঠি দেয়নি। গাছ কেটে নেয়ার সংবাদ পেয়ে বনবিভাগের মাধ্যমে শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের কালিবাড়ী ফুয়াদ হোসেনের স-মিলে একটি গাছ পেয়ে তা জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সহকারী কমিশনার (ভুমি) ফাহমি মো. সায়েফকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি কমিটি করা হয়েছে। ওই কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
উপজেলা বন বিভাগের ফরেষ্টার ইউসুফ আলী জানান, ওই গাছের মূল্য নির্ধারনের একটি চিঠি পেয়ে মূল্য নির্ধারণ করে ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হাসান সরদারকে দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে তার ইউএনও স্যারের সাথে আলোচনা করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়ার কথা ছিলো।
উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাষ্টার অমূল্য রঞ্জন হালদার জানান, উপজেলা পরিষদের ওই মূল্যবান গাছগুলো অবৈধভাবে কাটা হয়েছে। ইউএনওকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য চিঠি দেয়া হয়েছে। তার প্রতিবেদন পাওয়ার পরে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সর্বশেষ