২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পটুয়াখালীতে অবৈধ অটোরিকশার দাপট

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

পটুয়াখালী প্রতিনিধি ::: পটুয়াখালীতে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার দাপটে নাকাল বাসিন্দারা। লাইসেন্স ছাড়া অবৈধভাবে চলছে বেশিরভাগ ইজিবাইক ও অটোরিকশা। অতিরিক্ত চাপের কারণে পৌর শহরে যানজট লেগেই থাকে। অনেক সময় ঘটে দুর্ঘটনাও। তবে, ট্রাফিক আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ।

সরেজমিনে দেখা গেছে, পটুয়াখালী শহরের চৌরাস্তা থেকে সবুজবাগ মোড়, নিউ মার্কেট, তিতাস সিনেমা মোড়সহ প্রতিটি সড়কে অটোরিকশা ও ইজিবাইকের দাপটে যানজট লেগেই থাকে। হিমশিম খেতে হয় ট্রাফিক পুলিশকে। মহাসড়কের যত্রতত্র দাঁড়িয়ে ওঠানামার কারণে অনেক সময় ঘটে দুর্ঘটনাও। এছাড়া, পার্কিংয়ের কারণে সৃষ্টি হয় যানজট। এতে প্রতিনিয়ত ভোগান্তি পোহাতে হয় শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষের।

পৌরবাসী জানায়, সড়কে এসব যান এমনভাবে পার্কিং করা থাকে, পথ চলাচলের কোনো সুযোগ থাকে না। সময় মতো কাজে পৌঁছানো যায় না। এছাড়া ছোট্ট শিক্ষার্থীরা প্রতিনিয়ত ঝুঁকি নিয়ে স্কুলে যাতায়াত করছে। এ নিয়ে অভিভাবকদের সদা চিন্তায় থাকেন।

এ বিষয়ে পটুয়াখালী পৌরসভার মেয়র মহিউদ্দিন আহম্মেদ বলেন, ‘পটুয়াখালী পৌরশহরে ৩ থেকে ৪ হাজার অটোরিকশা চলতে পারলেও সেখানে প্রতিদিন কয়েকগুণ বেশি চলাচল করায় সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। আমরা তাদের আইনের আওতায় আনার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।’

পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মো. সাইদুল ইসলাম বলেন, ‘তাদের কোনো বৈধ লাইসেন্স ও প্রশিক্ষণ নেই। তাদের সচেতনতার অভাব রয়েছে। এসব অবৈধ অটোরিকশাকে নিয়ন্ত্রণে আমরা নানাবিধ পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।’

পটুয়াখালী পৌরসভায় লাইসেন্সধারী অটোরিকশার সংখ্যা প্রায় সাড়ে চার হাজার। আর চলাচল করছে প্রায় সাড়ে ৮ হাজার অটোরিকশা। এদিকে সদর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের তথ্যমতে, গত এক বছরে সদর পৌর এলাকায় ৫২টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। এসব দুর্ঘটনায় নিহত না হলেও আহত শতাধিক। এ দুর্ঘটনার ৬০ ভাগই অটোরিকশার কারণে।

সর্বশেষ