২০শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পটুয়াখালীতে স্যানিটারী ইন্সপেক্টর মহিউদ্দিনকে পিটিয়ে যখম

মির্জা আহসান হাবীব ঃ পটুয়াখালীর সিভিল সার্জন কার্যালয়ের স্টেনো টাইপিস্ট খলিলুর রহমানের হাতে রক্তাক্ত জখম হয়ে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন জেলা স্যানিটারী ইন্সেপেক্টর মহিউদ্দিন আল মাসুদ।
সিভিল সার্জন অফিস ও হাসপাতালে চিকিৎসারত জেলা স্যানিটেশন ইন্সেপেক্টর মহিউদ্দিন আল মাসুদ জানান, সিভিল সার্জন ডাঃ এস এম কবির হাসান, পটুয়াখালী জেলার বেসরকারী ক্লিনিক ও হাসপাতাল সমূহের লাইসেন্সের বর্তমান অবস্থা যাচাই বাছাই পূর্বক সঠিক তথ্য নির্নয়ের জন্য সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ তৌফিকুর রহমান রাকিব, সিনিয়র মেডিকেল টেকনোলজিস্ট মোঃ রফিকুল ইসলাম ও তাকে ( মহিউদ্দিন আল মাসুদ) নিয়ে তিন সদস্য বিশিস্ট একটি কমিটি গঠন করেন। এ কমিটি অত্র সিভিল সার্জন কার্যালয়ের স্টেনো টাইপিস্ট খলিলুর রহমানের রক্ষিত ফাইল সমূহ সংগ্রহ করে তালিকা নির্নয় পূর্বক সিভিল সার্জনের কাছে দাখিলের নির্দেশ দেন সিভিল সার্জন। এ চিঠি প্রাপ্ত হয়ে ঘটনারদিন ২৮ জুলাই বৃহষ্পতিবার বিকাল সাড়ে ৩ টায় কমিটির সভাপতির উপস্থিতিতে মহিউদ্দিন আল মাসুদ সিভিল সার্জন অফিসের হেডক্লার্কের কক্ষে গিয়ে জনৈক এক স্টাফের কাছে উক্ত ফাইল সম্পর্কে কথাবার্তা বলার সময় স্টেনো টাইপিস্ট খলিলুর রহমান আকস্মিকভাবে স্টিলের স্কেল দিয়ে পিছন থেকে মাথায়সহ শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাত করে, এতে মাথা ফেটে রক্তাক্ত হয়ে ফ্লোরে লুটিয়ে পরে। সেখানে অবস্থানরত মেডিকেল অফিসার ডাঃ তৌফিকুর রহমান রাকিব ও অফিসের সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর বেল্লালসহ অন্যান্য স্টাফরা জেলা স্যানিটারী ইন্সেপেক্টর মহিউদ্দিন আল মাসুদকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ব্যাপারে মামলা করার প্রক্রিয়া চলছে বলে মহিউদ্দিন আল মাসুদ জানান।
এ বিষয়ে সিভিল সার্জন ডাঃ এস এম কবির হাসান জানান, ঘটনা শুনেছি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ