৬ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বরিশালে পরকীয়া থেকে ফেরাতে স্ত্রীর গালে গরম খুন্তির ছ্যাঁকা ! স্বামী গ্রেফতার

বরিশাল বাণী: পরকীয়া প্রেমের অভিযোগে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বার্থী ইউনিয়নের বার্থী গ্রামের প্রবাসীর স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননী সোনিয়া বেগমকে (৩২) প্রবাসী স্বামী গালে গরম খুন্তির ছ্যাঁকা দিয়ে দগ্ধ করে দিয়েছে । এ ঘটনায় সোনিয়া বেগম বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে প্রবাসী স্বামী মিন্টু মাতুব্বরকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ মিন্টু মাতুব্বরকে গ্রেপ্তার করেছে। আহত সোনিয়া বেগম গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও সালিস বৈঠকে উপস্থিত একাধিক সালিস জানান, গৌরনদী উপজেলার বার্থী গ্রামের করম আলী মাতুব্বরের ছেলে মিন্টু মাতুব্বর (৩৬) তিন বছর পূর্বে জীবিকার তাগিদে সৌদি আরবে যান। ওই সময়ে তার স্ত্রী তিন সন্তানের জননী সোনিয়া বেগমের (৩২) সঙ্গে তার চাচাতো ভাই আল মামুন মাতুব্বর (২৬) পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত এব বছর ধরে সৌদী বসেই মিন্টু মাতুব্বর বিষয়টি জানতে পারার পরে এ নিয়ে স্ত্রী সোনিয়ার সঙ্গে তার মুঠোফোনে প্রায়ই বাকবিতান্ডা হয়। সম্প্রতি সময়ে মিন্টু মাতুব্বর বাড়িতে আসার পরে সৌদী থাকাকালীন সময়ে স্ত্রী সোনিয়ার নামে পাঠোনো ৭ লাখ টাকার হিসেব চান এবং পরকীয় সম্পর্কে জানতে যান। এ নিয়ে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ সৃষ্টি হয়। বাড়িতে আসার পরে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া বিবাদ লেগেই ছিল। বিরোধ চরম পর্যায়ে পৌছলে উভয় পরিবারের সিদ্বান্তে বৃহস্পতিবার সালিস বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

বার্থীর ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য আঃ করিম লস্কর জানান, উভয় পরিবারের অভিভাবক ও গ্রামের গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে বৃহস্পতিবার প্রবাসী স্বামী মিন্টুর বাড়িতে সালিশ বৈঠকে বসে। সালিস বৈঠকে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি ও বাক বিতান্ডার এক পর্যায়ে উভয়ের স্বজনদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে প্রবাসীর স্ত্রী সোনিয়া বেগম সালিস বৈঠকে স্বামীর সংসার না করার ঘোষনা দিয়ে প্রবাসী স্বামী মিন্টু মাতুব্বরকে ডিপোর্স দিয়ে বাবার বাড়িতে চলে যাওয়ার কথা জানায়। এ সময় মিন্টু মাতুব্বর ক্ষিপ্ত হয়ে নিজ ঘরে ঢুকে গরম লোহার খুন্তি এনে সালিশ বৈঠকে উপস্থিত স্বজন ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সামনে স্ত্রী সোনিয়ার গালে গরম খুন্তির ছ্যাঁকা দিয়ে ঝলসে দেন। বৈঠকের সালিস বার্থী ইউনিয়ন পরিষদের ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য মোঃ মোস্তফা কামাল ও বার্থী ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য আল-মাদানী শিকদার বলেন, আমরা মিন্টু মাতুব্বর ও সোনিয়া বেগমের স্বজনদের নিয়ে তাদের দাম্পত্য কলহ আপোষ মিমাংসা করতে বসেছিলাম। আমাদের সামনে মিন্টু মাতুব্বর সালিস বৈঠকে উপস্থিত উভয় পক্ষের শতাধিক স্বজন ও এলাকাবাসির সামনে আকস্মীকভাবে গরম লোহার খুন্তি দিয়ে তার স্ত্রীর গালে ছ্যাঁকা দেয়। এতে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে বিক্ষুব্ধ লোকজন স্বজন মিন্টু মাতুব্বরকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে দুপুরে সোনয়িাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে এবং মিন্টু থানায় নিয়ে যায়।

গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আফজাল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় প্রবাসীর স্ত্রী সোনয়িা বেগম বাদি হয়ে স্বামী মিন্টু মাতুব্বরকে আসামি করে রাতে থানায় মামলাদাযের করেছে। পুলিশ মামলার একমাত্র আসামি মিন্টু মাতুব্বরকে গ্রেপ্তার করেছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ