১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

এবার পটুয়াখালীতে পরীক্ষার হলে ম্যাজিস্ট্রেট ম্যানেজ করতে চাঁদা উত্তোলন

দশমিনা(পটুয়াখালী) সংবাদদাতা।। পটুয়াখালীর দশমিনা সরকারী আব্দুর রসিদ তালুকদার ডিগ্রি কলেজের ইংরেজী বিভাগের প্রভাষক মো. ফারুক হোসাইন নিলয় এর বিরুদ্ধে পরিক্ষার হলে অনৈতিক সুবিধা দেওয়ার কথা বলে শতাধিক ডিগ্রি পরিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় সোমবার শেষ বিকালে ভুক্তভোগী পরিক্ষার্থীদের পক্ষে কলেজের বিএ শেষ বর্ষের ছাত্র মো. আল ইমরান হোসেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে জেলা প্রশাসক বরাবর
লিখিত অভিযোগ করেছেন।
লিখিত অভিযোগে বলা হয়, প্রভাষক ফারুক হোসাইন নিলয় চলতি মাসের ৬তারিখ অনুষ্ঠিত ইংরেজী পরিক্ষার হলে ম্যাজিষ্ট্রেট ম্যানেজ ও নকল সরবরাহ করার কথা বলে শতাধিক পরিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৫শ’ থেকে ১ হাজার টাকা পর্যন্ত আদায় করেছেন। অভিযোগে আরো বলা হয়, টাকা নেওয়া পরিক্ষার্থীদের পরিক্ষার হলে অনৈতিক সুবিধা দিতে না পারায় তারা টাকা ফেরৎ চাইলে বিভিন্ন ভাবে তাদের হুমকী ধামকী দেওয়া হচ্ছে। টাকা নিয়ে অনৈতিক সুবিধা দিতে না পারায় ওই শিক্ষকের সাথে একাধিক শিক্ষার্থীর বাক বিতন্ডা ও কথোপথনের ফোন রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগে বাইলার হয়েছে। পরিক্ষার্থীদের পক্ষে অভিযোগকারী মো. আল ইমরান হোসাইন বলেন, অভিযোগের পরে আমার কাছ থেকে নেওয়া টাকা ওই প্রভাষক ফেরৎ দিতে চাইলেও আমি নেইনি বলেছি সকলের টাকা ফেরৎ দিতে হবে।
অভিযোগ অস্বীকার করে দশমিনা সরকারী আব্দুর রসিদ তালুকদার ডিগ্রি কলেজের ইংরেজী প্রভাষক মো. ফারুক হোসাইন নিলয় বলেন, আমার বিরুদ্ধে একটি মহল ষড়যন্ত্র করছে।
এ বিষয়ে দশমিনা সরকারী আব্দুর রসিদ তালুকদার ডিগ্রি কলেজের অধ্যাক্ষ মো. মাহমুদল্লাহ বলেন, বিভিন্ন ভাবে বিষয়টি আমি শুনেছি তবে শিক্ষার্থীরা কেউ আমার কাছে এব্যাপারে লিখিত অভিযোগ করেনি।
এব্যপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দিন আল হেলাল বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে এবং লিখিত অভিযোগটি জেলা প্রশাসক মহোদয়ের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ