১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পিরোজপুরে মাদ্রাসাছাত্র সাকিব হত্যায় ৪ জনের যাবজ্জীবন

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

পিরোজপুর প্রতিনিধি ::: পিরোজপুরে সাকিব নামে ১০ম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রকে হত্যার অপরাধে ৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৩০ মে) দুপুরে পিরোজপুর জেলা ও দায়রা জজ মুহা. মহিদুজ্জামান আসামিদের উপস্থিতিতে এ আদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- সদর উপজেলার একপাই জুজখোলা গ্রামের খলিল মোল্লার ছেলে দুলাল মোল্লা, কদমতলার বাসিন্দা মৃত ওহাব মোল্লার ২ ছেলে সাইদুল ইসলাম ওরফে সায়েদ শেখ ও মো. শহিদুল ইসলাম এবং একই এলাকার আলম শেখের ছেলে বেল্লাল শেখ।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৭ সালের ৬ মে সদর উপজেলার কদমতলা গ্রামের মৃত আলতাফ হোসেনের ছেলে পিরোজপুর ফাজিল মাদ্রাসার ১০ম শ্রেণির ছাত্র তানভীর আহসান সাকিব ছাত্রলীগের কমিটি গঠন ও পিকনিকের জন্য গণসংযোগ শেষে বন্ধু-বান্ধবসহ পোরগোলা থেকে ৪/৫টি মটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফিরছিল। রাত আনুমানিক ৯টার দিকে পথিমধ্যে একপাই জুজখোলার ধোপাবাড়ি সেতুর ওপর পৌঁছাতেই আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা ১০/১২ জন দৃষ্কৃতকারী তাদের ওপর হামলা চালিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। এ ঘটনায় সাকিব ও তার বন্ধু আকাশ এবং সিয়াম রক্তাক্ত জখম হয়।
স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করেন। গুরুতর আহত সাকিবের অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু সেখানে অবস্থার আরও অবনতি ঘটলে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। ঢাকায় নেয়ার সময় পথিমধ্যে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহত সাকিবের মা দেলোয়ারা বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. সেলিম মিয়া দীর্ঘ তদন্ত শেষে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ৬ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। এর আগে সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন। আদালত উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক, মামলার পারিপার্শ্বিক অবস্থা বিচার- বিশ্লেষণ শেষে আজ এ রায় ঘোষণা করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মো. ফারুক সরদার এবং আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট আহসানুল কবির বাদল মামলা পরিচালনা করেন।

সর্বশেষ