১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পীর হবার জন্য নয়, তরীকা মশক করতে হবে আল্লাহ ওয়ালা হবার জন্য-পীর ছাহেব ছারছীনা

হারুন অর রশিদ, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
আমীরে হিযবুল্লাহ ছারছীনা শরীফের পীর ছাহেব আলহাজ্ব হযরত মাওলানা শাহ মোহাম্মদ মোহেব্বুল্লাহ (মা.জি.আ.) বলেছেন- বর্তমানে অনেকেই রুসমী মুরিদ হয় কিন্তু সবক মশক করে না। মুরীদ হওয়াই যথেষ্ট নয় বরং আল্লাহর রেজামন্দী লাভ করতে হলে নিয়মিত অজীফা আদায় করার কোন বিকল্প নেই। নিয়মিতভাবে সবক আদায় করলে এবং গুনাহের কাজ পরিহার করলে এবং হালাল খাবার খেলে আল্লাহপাক অন্তরে নূর দান করেন। তার কবর হাশর সব জায়গায় সে নূর লাভ করে অনায়াসে জান্নাতের মেহমান হতে পারবে ইনশাআল্লাহ।

ছারছীনার পীর আলহাজ মাওলানা শাহ মোহাম্মদ মোহিব্বুল্লাহ বলেছেন, মুমিন জীবনে আকিদা ও এতেকাদের গুরুত্ব সর্বাধিক। আকিদা হলো ঈমান। যে সকল বিশ্বাস অন্তরে ধারণ ও লালন করি তাই আকিদা। আমাদের আকিদা কি হবে তা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের ইমামগণ বহু পূর্বেই নির্ধারণ করে রেখেছেন। যেমন- আল্লাহর একত্ববাদ, তার জাত ও সিফাতের চিরন্তনতা, রেছালাত ও তার যথাযথ মর্যাদা, আউলিয়ায়ে কেরামগণের কারামত ও এস্তেমদাদে রুহানি ইত্যাদি। আর এতেকাদ হল নিজ ছেলছেলা, মাযহাব, তরিকা ও পীর হক হওয়ার ওপর পরিপূর্ণ আস্থাবান হওয়া। আকিদা ও এতেকাদের সমন্বয় হলেই আমল ও তরিকা কাছে আসবে। তাই আমলের মাধ্যমে আধ্যাত্মিক উন্নতি লাভ করতে হলে অবশ্যই আকিদা ও এতেকাদ সঠিক করতে হবে। মাহফিলে তালিমের সময় পীর সাহেব এসব কথা বলেন। তিনি সকলকে তরিকতপন্থী হয়ে জীবন যাপনের আহবান জানান।

বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলাধীন ছারছীনা দরবারের তত্ত্ববাবধানে পরিচালিত আমড়াগাছিয়া খানকায়ে সালিহিয়া কমপ্লেক্স ময়দানে তিনদিন ব্যাপী দ্বিতীয় বৃহত্তম ইসালে সাওয়াব মাহফিল ও হিযবুল্লাহ সম্মেলণ আজ (শুক্রবার) বাদ জুমআ বাদ আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্তি হয়। সকাল থেকেই দূর- দূরান্ত থেকে বাস ট্রাক ও অন্যান্য যানবাহনে করে লক্ষাধিক ধর্মপ্রাণ মুসলিম ও মুরিদানরা জুমআর নামাজ আদায় ও আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে কমপ্লেক্স ময়দানে সমবেত হন।

মাহফিলে ইসলামের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াবলীর উপর আলোচনা করেন- হযরত পীর ছাহেব কেবলার ছোট ছাহেবজাদা আলহাজ্ব হযরত মাওলানা শাহ্ আবু বকর মুহাম্মদ ছালেহ নেছারুল্লাহ, বাংলাদেশ জমইয়াতে হিযবুল্লাহর নায়েবে আমীর আলহাজ্ব মাওলানা মির্জা নূরুর রহমান বেগ, ছারছীনা দারুসসুন্নাত আলিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ড. সৈয়দ মোঃ শরাফত আলী, উপাধ্যক্ষ মাওলানা মোঃ রুহুল আমিন ছালেহী, মাওলানা আ.জ.ম. অহিদুল আলম, মাওলানা মাহমুদুল মুনির হামীম, মাওলানা সিরাজুম মুনীর তাওহীদ, মাওলানা কাজী মফিজ উদ্দিন, হাফেজ মাওলানা মোঃ বোরহান উদ্দিন প্রমূখ।

মাহফিলে বিশেষ মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মহিব্বুর রহমান মুহিব, সহকারী পুলিশ সুপার (আমতলী-তালতলী সার্কেল) সৈয়দ রবিউল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মোঃ মতিয়ার রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আসাদুজ্জামান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ মজিবুর রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আখতারুজ্জামান বাদল ও বোরহান উদ্দিন আহম্মেদ মাসুম তালুকদার প্রমূখ।

জুমআর নামাজ শেষে মাহফিলের আখেরি মুনাজাতে ছরছীনা দরবার পীর আলহাজ মাওলানা শাহ মোহাম্মদ মোহিব্বুল্লাহ দেশ, জাতি, মুসলিম উম্মাহর সার্বিক কল্যাণ কামনা করে ও বিশেষ করে বিশ্বের মহামারী করোনা ভাইরাসের জন্য দোয়া মুনাজাত পরিচালনা করেন। এসময় পুরো মাহফিল ময়দান আমিন আমিন ধ্বনিতে প্রকম্পিত হয়ে উঠে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ