২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
ইরানের প্রেসিডেন্ট, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও গভর্নর নিহ*ত নিশানবাড়ীয়া ইউপি চেয়ারম্যানকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা লন্ডনে যুদ্ধবিরোধী বিক্ষোভ: ফিলি*স্তিনে গ*ণহ*ত্যা বন্ধের দাবী দেশের বীমা খাতে দৃষ্টান্ত স্থাপন করছে এনআরবি ইসলামিক লাইফ ইন্স্যুরেন্স ২৯ মে সারাদিন লালমোহন উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে কাপ পিরিচ মার্কায় ভোট দিন আবারও বাড়ল স্বর্ণের দাম সৌদিতে ২৮৭৬০ বাংলাদেশি হজযাত্রী পৌঁছেছেন, দুইজনের মৃত্যু জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ১ম বর্ষে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচন : দ্বিতীয় ধাপে ৪৫৭ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন সোমবার থেকে ৬৫ দিন সমুদ্রে মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা

বকেয়া বেতনের দাবিতে বরিশালে শ্রমিকদের অবস্থান কর্মসূচি

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

নিজস্ব প্রতিবেদক :: অবিলম্বে কারখানা খুলে দেওয়া ও ৮ মাসের বকেয়া বেতনের দাবিতে বরিশালের সোনারগাঁও টেক্সটাইল মিলের শ্রমিক-কর্মচারীরা অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন।

মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) সকাল ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত নগরের রূপাতলী এলাকায় সোনারগাঁও টেক্সটাইল মিলের প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান নিয়ে এই কর্মসূচি পালন করে শ্রমিকরা।

একই দাবিতে গত ১৬ নভেম্বর বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়ক অবরোধ করেন বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। সেই সময় পুলিশ প্রশাসন ও মিল মালিকের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নিয়েছিলেন তারা। গত দুই মাসেও মালিক পক্ষ শ্রমকি-কর্মচারীদের দাবি দাওয়া পূরণ না করায় পুনরায় আন্দোলনে নামেন শ্রমিকরা। তবে বরিশালের স্থানীয় প্রসাশনের সঙ্গে বৈঠক করে তারা এবার সড়ক অবরোধ না করে কারখানার মূল ফটকে দাঁড়িয়ে অবস্থা কর্মসূচি পালন করেন।

শ্রমিকদের অবস্থান কর্মসূচিকে ঘিরে সোনারগাঁও টেক্সটাইল মিলের সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়। দেড় ঘণ্টা পর বরিশালের জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার আশ্বাসে শ্রমিকরা কর্মসূচি প্রত্যাহার করেন। তবে এক মাসের মধ্যে সমাধান দিতে না পারলে পুনরায় আন্দোলনে যাবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন শ্রমিক নেতারা।

বরিশালের জেলা প্রশাসকের পক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুনিবুর রহমান বলেন, আমরা শ্রমিকদের সঙ্গে আছি। কারণ শ্রমিকরাই হচ্ছে অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি। বরিশালের জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দিন হায়দার শ্রমিকদের বিষয়টি নিয়ে মালিকের সঙ্গে কথা বলেছেন। আশা করি খুব শিগগিরই এই সমস্যার সমাধার হয়ে যাবে।

আন্দোলনরত শ্রমিক-কর্মচারীরা বলেন, দীর্ঘ ৮ মাস ধরে কারখানা বন্ধ রয়েছে। এতে কারখানার প্রায় ৬ শতাধিক শ্রমিক অর্ধাহারে অনাহারে দিন যাপন করছে। কিন্তু মালিক পক্ষ আমাদের দিনের পর দিন ঘুরিয়ে যাচ্ছে। যদি মিল কারখানা চালু করতে হয় তবে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধ করে চালু করতে হবে। আর বন্ধ করলেও শ্রমিকদের মজুরি দিতে হবে।

শ্রমিকরা অভিযোগ করে বলেন, সোনারগাঁও টেক্সটাইল মিলের মালিক সঠিকভাবে কোন শ্রমিকের বেতন দেন না। করোনাকালে সরকার বিভিন্ন কল কারখানার জন্য সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। কিন্তু এই সোনারগাঁও টেক্সটাইল মিলের মালিক সেই বরাদ্দ আনতে পারেনি। শ্রমিকদের কল্যাণ ফান্ডের টাকাও লুটেপুটে খাচ্ছেন।

সোনারগাঁও টেক্সটাইল মিল শ্রমিক-কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি বেল্লাল গাজীর সভাপতিত্বে অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক নুরুল হক শাহিন। একাত্মতা প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন জেলা বাসদ আহ্বায়ক ইমরান হাবিব রুম্মান এবং সদস্য সচিব ডা. মনীষা চক্রবর্তী।

সর্বশেষ