৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বরগুনায় নদী তীরবর্তি বাঁধের দুই তৃতীয়াংশ বিলীন হয়ে গেছে

বরগুনা প্রতিনিধি :: প্রবল বৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে বরগুনায় প্রায় ৯ কিলোমিটার বাঁধ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এতে ভাঙনকবলিব এলাকার বিষখালী তীরবর্তি বাঁধের দুই তৃতীয়াংশ নদীতে বিলীন হয়ে গেছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, বরগুনা সদর উপজেলায় বদরখালি, ঢলুয়ার ডালভাঙা ও এম বালিয়াতলী এলাকার তিনটি স্থানে ৫.৪৫ কিলোমিটার, পাথরঘাটা উপজেলার কালমেঘা, ছোনবুনিয়া ও তালুকের চরদুয়ানি এলাকায় ১ কিলোমিটার ২৬৩ মিটার, বামনার উপজেলায় অযোধ্য, কালিকাবাড়ী এলাকায় ৪৩৬ মিটার, তালতলীতে ১ কিলোমিটার ২১০ মিটার ও বেতাগী উপজেলার বুড়ামজুমদার এলাকায় ২০ মিটার বাঁধ জোয়ারের পানিতে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

বরগুনা সদরে ঢলুয়া ইউনিয়নের বরইতলা, মাঝখালি ও ডালভাঙাসহ বেশ কিছু এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, ভাঙনকবলিব এসব এলাকার বিষখালী তীরবর্তি বাঁধের দুই তৃতীয়াংশ নদীতে বিলীন হয়েছে। এ ছাড়াও এম বালিয়াতলী ও নলটোনা এলাকায়ও একই অবস্থা।

ঢলুয়ার মাঝখালি এলাকার বাসিন্দা মিল্টন দফাদার বলেন, ‘লঘুচাপজনিত প্রবল জোয়ারে বাঁধের বেশিরভাগ অংশ নদীতে বিলীন হয়েছে। এসব এলাকায় বাঁধ সংস্কারে লাভ নেই, স্থায়ী সুরক্ষা বাঁধ নির্মাণ ব্যতিত এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ অসম্ভব।’ একই বক্তব্য ভাঙনকবলিত এলাকার অন্য বাসিন্দাদেরও।

পানি উন্নয়ন বোর্ড বরগুনা কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী কায়ছার আলম বলেন, ‘বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ, বৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে পাঁচটি উপজেলায় প্রায় ৯ কিলোমিটার বাঁধের ক্ষতি হয়েছে। এসব বাঁধের সংস্কারে অর্থ বরাদ্দের জন্য আমরা মন্ত্রণালায়ে চিঠি পাঠাবো।’

জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে জেলায় ক্ষতিগ্রস্থ ২১ কিলোমিটার বাঁধের সংস্কার কাজ চলমান রয়েছে। জোয়ারে ক্ষতিগ্রস্থ বাঁধের স্থান চিহিৃত করে আমরা সংস্কারের ব্যবস্থা করবো।’

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ