৭ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বরিশালে কাজের মজুরি আনতে যাওয়ায় কিশোরকে বেঁধে মারধর!

বাণী ডেস্ক।।
বরিশালের আগৈলঝাড়ায় চাল চুরির অপবাদে রশি দিয়ে বেঁধে সাব্বির পাইক (১৭) নামে এক কিশোরকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই কিশোরের মা।

মারধরের শিকার সাব্বির পাইককে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। সে আগৈলঝাড়া উপজেলার ফুল্লশ্রী গ্রামের আলমগীর পাইকের ছেলে।

আগৈলঝাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাজহারুল ইসলাম ওই কিশোরের স্বজনদের বরাত দিয়ে জানান, রোববার সন্ধ্যার পরে উপজেলার ফুল্লশ্রী গ্রামের হিমু হাওলাদারের বাড়িতে কাজের মজুরির টাকা আনতে যায় সাব্বির পাইক। সেই সময় হিমু হাওলাদার চাল চুরির মিথ্যা অপবাদ দিয়ে রশি দিয়ে সাব্বিরকে বেঁধে মারধর করেন।

কিশোর সাব্বির জানায়, হিমু হাওলাদারের বাড়িতে স্যানিটারির কাজ করেছে সে ও একই এলাকার বাসিন্দা জিয়া ফকির। সন্ধ্যার পরে মজুরির টাকা চাইতে গেলে হিমু ফকির তার ঘর থেকে দুই কেজি চাল চুরি হয়েছে, এমন মিথ্যা অভিযোগ আনেন। পাশাপাশি তাদের মজুরির টাকা না দিয়ে উল্টো সাব্বিরকে রশি দিয়ে বেঁধে হিমু ও তার পরিবারের লোকজন মারধর করেনে। হিমু হাওলাদার তার ঘর থেকে একটি রামদা বের করে সাব্বিরকে জবাই করে হত্যার হুমকি দেন। পরে সাব্বিরের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

সাব্বিরের মা কহিনুর বেগম বলেন, বিনা অপরাধে মিথ্যা চুরির অপবাদ দিয়ে আমার ছেলেকে মারধর করা হয়েছে। ছেলেকে মারধরের ঘটনায় বিচার দাবি করছি।

রশি দিয়ে বেঁধে মারধরের ঘটনা অস্বীকার করে অভিযুক্ত হিমু হাওলাদার বলেন, সাব্বির আমার বাড়িতে স্যানেটারির কাজ করেছে। সে সন্ধ্যার পরে আমার বাড়িতে কাজের টাকা চাইতে আসে। তখন আমি তার কাছে চাল চুরির বিষয়ে জানতে চাইলে বাকবিতণ্ডা হয়।

আগৈলঝাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাজহারুল ইসলাম জানান, এক কিশোরকে মারধরের ঘটনায় তার মা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ