১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বরিশালে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি, টানা দ্বিতীয় দিনেও সূর্যের দেখা মেলেনি

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

বাণী ডেস্ক।।
দক্ষিন-পশ্চিমাঞ্চলে আরও গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিসহ ভারি বিষ্টি, দমকা ও ঝড়ো হাওয়া এবং বজ্র বৃষ্টির আশঙ্কা করেছে স্থানীয় আবহাওয়া বিভাগ। নদী বন্দরে ২ নম্বর এবং সমুদ্র বন্দরে জারি করা হয়েছে ৩ নম্বর সংকেত।

মাছধরা ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থাকার পাশাপাশি গভীর সমূদ্রে নৌযানের বিচরণ করতে নিষেধ করা হয়েছে। জাওয়াদের প্রভাবে বরিশালসহ দক্ষিনাঞ্চলে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। টানা দ্বিতীয় দিনের মতো সূর্যের দেখা মেলেনি।

বরিশাল আবহাওয়া অফিসের উচ্চ পর্যবেক্ষক মাসুদ রানা জানান, ঘূর্নিঝড় ‘জাওয়াদ’ এর প্রভাবে বিকেল ৩টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় বরিশালে ৪.৫ মিলিমিটার বৃস্টি হয়েছে। থেমে থেমে বিভিন্ন স্থানে গুড়ি গুড়ি বৃস্টি হচ্ছে। দক্ষিন-পশ্চিমাঞ্চলে আরও বৃস্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

সুন্দরবন-যশোর-সাতক্ষীরাসহ বরিশালের কিছু জায়গায় ভারী বৃস্টি, দমকা ও ঝড়ো হওয়া এবং বৃস্টিসহ বজ্র বৃস্টি হতে পারে। বিকেলে বরিশালে বাতাসের আদ্রতা ছিলো ৮৭ ভাগ।

সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ২৪.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ২০.৫ ডিগ্রি সেলিসিয়াস। দিনভর মেঘাচ্ছন্ন আবহাওয়ার কারনে দুই দিন ধরে সূর্যের দেখা পাওয়া যাচ্ছে না।

তিনি আরও জানান, দুর্যোগপূর্ন আবহাওয়ার কারনে মাছ ধরা ট্রলার সমূহকে উপকূলের কাছাকাছি অবস্থানের পাশাপাশি গভীর সমূদ্রে বিচরন করতে নিষেধ করা হয়েছে আবহাওয়া বিভাগের সব শেষ ফোরকাস্টে।

এ কারনে সমূদ্র বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় এবং নদী বন্দরে ২ নম্বর সতর্কতা সংকেত জারি করা হয়েছে। এদিকে মেঘাচ্ছন্ন ২টি দিন গুমোট পরিস্থিতিতে কেটেছে বরিশালবাসীর। ঝড় আঘাত হানতে পারে আশংকায় রয়েছেন তারা। জাওয়াদের প্রভাবে শীতের প্রকোপ কিছুটা বেড়েছে।

সর্বশেষ