১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
ঝালকাঠিতে স্ত্রীর যৌতুক মামলায় পুলিশ কর্মকর্তা শ্রীঘরে ববিতে ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে বৃদ্ধি পেয়েছে ৫০টি আসন গলাচিপায় স্কুলের কমিটি নিয়ে তর্ক, সহকর্মীর বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ শিক্ষকের টানা দুই মাস মেঘনা ও তেতুলিয়া নদীর অভয়াশ্রমে মাছ ধরার উপর নিষেধাজ্ঞা গলাচিপায় শিক্ষকের হাতে শিক্ষক লাঞ্ছিত, তদন্তে কমিটি আমতলী পৌরসভার বাসস্ট্যান্ডে বাঁশের বেড়া, যাত্রীসেবা সড়কে বাউফলে প্রেমিক যুগলকে না পেয়ে প্রেমিকার বাবাকে মারধর দেশ ও ইসলাম রক্ষায় বৃহত্তর ঐক্যের বিকল্প নেই : চরমোনাই পীর নলছিটিতে ৫ কেজি গাঁজাসহ মাদক বিক্রেতা আটক বরিশালে বড়ই বিক্রেতাকে পেটালেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও তার সহযোগী

বরিশালে ডায়াগনস্টিকে প্রতারণাঃ ডিবির অভিযানে মালিক-কর্মচারী সহ আটক-৪

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

এম সাইফুল—-

বরিশালে এবার চিকিৎসাখাতে প্রতারণা সহ নানা অপকর্ম বন্ধে হার্ডলাইনে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ ডিবি। জাল স্বাক্ষর, ভূয়া কাগজপত্র, ভূয়া ডাক্তার, নিম্ন মানের ল্যাব সামগ্রী সহ নানাভাবে প্রতারণার দায়ে অভিযুক্ত ডায়াগনষ্টিক ব্যবসায়ীদের ধরতে মাঠে কঠোর পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে বরিশাল প্রশাসন।

ইতিমধ্যে বরিশালে বিভিন্ন ডায়াগনষ্টিক, ল্যাব, ক্লিনিক ও ভূয়া হাসপাতালে অভিযান চালিয়েছে বরিশাল গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ও জেলা প্রশাসন। মৃত্যু চিকিৎসকের স্বাক্ষর জাল করা, চিকিৎসা ব্যবস্থাপত্র প্রদানসহ বিভিন্নভাবে প্রতরণা করার মাধ্যমে সাধারন রোগীদের কাছ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। শনিবার দুপুরে বরিশাল গোয়েন্দা পুলিশের ডিসি মঞ্জুর রহমানের নেতৃত্বে অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার মোঃ রেজাউল করীমসহ একটি টিম অভিযান শুরু করে। এসময় আগরপুর সড়কে দি মুন মেডিকেল সার্ভিসেস নামক একটি ডায়গনস্টিক সেন্টারে ল্যাবের কাগজপত্রের জালিয়াতির প্রমান পাওয়া যায়। পরবর্তীতে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ জিয়াউর রহমান ঘটনাস্থলে এসে ল্যাবের চারজনকে সাজা প্রদান করে ল্যাবটি সিল গালা করে দেন।

দন্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে মো. দি মুন মেডিকেল সার্ভিসের পরিচালক শাহিন ও তার ভাই মো. ইব্রাহিমকে ৬ মাস করে কারাদন্ড এবং দুই ভূয়া টেকনিশিয়ান শ্যাম সাহা ও শ্যামল মজুমদারকে ৩ মাস করে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

এসময় মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)’র অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার রেজাউল করীম বলেন, বরিশালে নামমাত্র অনেক ডায়াগনষ্টিক সেন্টার, ক্লিনিক ও ল্যাব গড়ে উঠেছে। যার বেশিরভাগ কাগজপত্র জাল। তাই রোগীরা যাতে প্রতারণা শিকার না হয় তার দিক নজর থেকে আমাদের অভিযান অব্যহত থাকবে। এছাড়া ভুক্তভোগী এক জনের পক্ষ থেকে একটি মামলা পাওয়া গেছে। যা বর্তমানে ডিবি কার্যালয়ে পক্রিয়াধীন আছে।

অভিযান নিয়ে জেলা প্রশাসকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জিয়াউর রহমান বলেন, বরিশালের ডায়াগনিষ্টিক সেন্টারগুলো বিভিন্ন অনিয়ম করছে। এখানে ডাক্তার কিংবা ট্যাকনোলোজিষ্ট নেই। চিকিৎসকের জাল স্বাক্ষর ব্যবহার করে রিপোর্ট দেওয়া হচ্ছে। তাই বিভিন্ন ডায়াগনষ্ঠিক সেন্টারে অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন মেয়াদে ৪জনকে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

সর্বশেষ