১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বরিশালে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে মারধর, পুলিশ সদস্য’র কারাদণ্ড

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বরিশালে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে করা মামলায় রুহুল আমিন হাওলাদার নামের এক পুলিশ সদস্যকে ২ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল। সেই সাথে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বরিশাল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আবু শামীম আজাদ এ রায় ঘোষণা করেন। এসময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

সাজাপ্রাপ্ত রুহুল আমিন বরিশালের উজিরপুর উপজেলার কাজিরা এলাকার মৃত নুরুল ইসলাম হাওলাদারের ছেলে ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুুলিশের নায়েক পদে এসটিএফ-২ কোম্পানি, পিওএম উত্তর বিভাগে কর্মরত আছেন।

আদালত সূত্র জানায়, ২০০৩ সালের ১৬ এপ্রিল রুহুল আমিন উপজেলার হস্তিশুন্ড এলাকার সেলিনা বেগমকে বিয়ে করেন। সংসার জীবনে তাদের ৮ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। দীর্ঘ ৮ বছর সংসার করার একপর্যায়ে রুহুল আমিন ছুটিতে বাড়ি এসে তার স্ত্রী সেলিনা বেগমের কাছে মিশনে যাবার কথা বলে ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। সেলিনা বেগম বাবার বাড়ি থেকে তাকে ১ লাখ টাকা এনে দেয়। এরপর ২০১৪ সালের ২২ নভেম্বর রুহুল আমিন ছুটিতে এসে বাকি এক লাখ টাকা দাবি করেন। সেই টাকা না পেয়ে স্ত্রী ও ছেলে সায়েম মাহামুদকে শ্বশুর বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। এছাড়া ২০১৫ সালের ২২ মার্চ রুহুল আমিন ছুটিতে নিজ বাড়িতে চলে আসেন।

২৪ মার্চ বিকেলে সে তার স্ত্রীর কাছে আরও এক লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। টাকা না দিলে সে স্ত্রী ও ছেলেকে নিজ বাড়িতে ফিরিয়ে নিতে অস্বীকার করেন। এতে প্রতিবাদ করলে স্ত্রী সেলিনা বেগমকে মারধর করেন।

এ ঘটনায় ২৯ এপ্রিল উজিরপুর মডেল থানায় মামলা করেন সেলিনা বেগম। একই বছর ২৪ মার্চ তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) শহিদুর রহমান আদালতে চার্জশিট জমা দেন।

সংশ্লিষ্ট আদালতের বেঞ্চ সহকারী আজিবর রহমান জানান, ট্রাইব্যুনাল ৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বৃহস্পতিবার পুলিশ সদস্যকে ২ বছরের কারাদণ্ড এবং সাথে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

সর্বশেষ