১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বাউফলে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

বাউফল প্রতিনিধি :: নিজের জমিতে মাটি কাটতে বাঁধা দেয়ায় পটুয়াখালীর বাউফলে পৌর ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মী রবিউল ইসলাম সুমন (২৮) কে কুপিয়ে জখম করেছে কেশবপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড বাজেমহল এলাকার হোসেল হাওলাদারের ছেলে ইসমাইল(৪০) ও রেজাউল(৩৫) দুই ভাই। বাউফল উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়নের বাজেমহল গ্রামে গতকাল আনুমানিক বিকাল ৩ টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। আরো আহত হয়েছে পৌর ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক সজল চন্দ্র(২৬) এবং ভাংচুর করা হয়েছে সজল চন্দ্রের মোটরসাইকেল।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এই ইসমাইল ও রেজাউল এলাকায় ডাকাত হিসেবে পরিচিত। এর আগেও তারা স্থানীয় অনেক বাসিন্দার উপরে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে হামলা করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পৌর ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ইসলাম সুমনের পৈত্রিক নিবাস উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়নের বাজেমহল গ্রামে। আনুমানিক গত দুই সপ্তাহ আগে রবিউল জানতে পারে ইসমাইল তার(রবিউল) জমিতে মাটি কেটে নিজের বসত-ভিটায় ফেলতেছে। খবর পেয়ে ছুটে যায় তিনি যাওয়ার পরে ইসমাইলকে তিনি নিষেধ করেন মাটি কাটতে তখন স্থানীয় জনতার উপস্থিতিতে ইসমাইল আর মাটি কাটবে না বলে শিকার করে। কিন্তু থেমে ছিল না ইসমাইল সে প্রতিদিন রবিউলের জমিতে মাটি কেটে নিচ্ছিল। আজ বৃহস্পতি বার বেলা ৩ টার দিকে ফের নিজ গ্রামে গিয়ে ইসমাইলকে মাটি কাটায় বাধা দেয় রবিউল এতেই ক্ষিপ্ত হয় ইসমাইলের ভাই রেজাউল এবং বাকবিতন্ডায় জড়ায় রবিউলের সাথে। বাকবিতন্ডার এক পর্যায় ইসমাইল ও রেজাউল নিজ বাসা থেকে রাম দা ও শাবল নিয়ে এসে এলোপাতাড়ি কোপ দেয় ছাত্রলীগ নেতা রবিউলকে এতে বাধা দিলে পৌর ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক সজল চন্দ্রের উপরেও হামলা চালায় ইসমাইল ও রেজাউল।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, রবিউল ইসলাম সুমন কে বেডে ভর্তি করা হয়েছে, তার মাথায় মোট সাতটি সেলাই লেগেছে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক কিছু ক্ষত আছে। সজল চন্দ্রকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়া বাসায় বিশ্রামের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
কান্না জড়িত কন্ঠে রবিউল ইসলাম সুমনের মা সাংবাদিকদের বলেন, দয়া করে লেখা লেখি করবেন না করলে আমার ছেলেকে মেরে ফেলবে, ওরা খুব ভয়ংকর।

এ বিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ রাহাত জামসেদ বলেন, রেজাউল এলাকার কুখ্যাত ডাকাত হিসেবে পরিচিত। দুইজন ছাত্রলীগ নেতার নেতার উপরে এভাবে হামলার ঘটনায় আমরা ক্ষুদ্ধ। আমরা আইনের মাধ্যমে ইসমাইল ও রেজাউলের কঠিন শাস্তি নিশ্চিত করবো।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক সুব্রত কুমার বিশ্বাস বলেন, যেহেতু মাথায় ইনজুরি হয়েছে তাই পর্যবেক্ষণে রাখার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে।

এ বিষয়ে বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বিষয়টি এখনো আমার জানা নেই অভিযোগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ