১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
মুলাদীতে আড়িয়াল খাঁ নদে গোসল করতে নেমে ২ তরুণী নিখোঁজ বাকেরগঞ্জে বসতঘরে মিলল মাটিচাপা অবস্থায় বৃদ্ধার মরদেহ চরফ্যাসনে মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় সাংবাদিক পরিবারের ওপর হামলা, আহত ৪ তালতলীতে বনের ২৫০ পিস লাঠি সহ গ্রেফতার ২ দুমকিতে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গাড়ি ভাঙচুর, থানায় অভিযোগ বৈশাখ উদযাপনে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে পর্যটকের পদচারণায় মুখরিত বাদলপাড়া একতা গোরস্থানে চিরনিদ্রায় সায়িত সাংবাদিক মামুনের ‘মা’ মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় - দুলারহাটে সাংবাদিক পরিবারের ওপর হামলা আহত-৪ বরিশাল শেবাচিমের প্রিজন সেলে আসামিকে পিটিয়ে হত্যা সাংবাদিক মামুনের মায়ের মৃত্যুতে বরিশাল তরুণ সাংবাদিক ঐক্য পরিষদের শোক

বাউফলে প্রেমিক যুগলকে না পেয়ে প্রেমিকার বাবাকে মারধর

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি ::: ঘর ছাড়া এক তরুণীকে (১৮) উদ্ধারের নামে প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে তার বাবাকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে বাউফল থানার পুলিশের বিরুদ্ধে। আহত ওই ব্যক্তিকে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। প্রেমিক ও প্রেমিকা বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

জানা গেছে, পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের নাজিরপুর গ্রামের বাশার হাওলাদারের (৫৫) ছেলের রিয়াজ হাওলাদারের (২৬) সাথে গত দুই বছর ধরে এক তরুণীর সাথে (১৮) প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। ওই তরুণীর বাড়ি সিলেটের জালালাবাদ উপজেলার পুরান কামারুকা ৪নং ওয়ার্ডে। মোবাইল ফোনে তাদের পরিচয় ও পরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত ৩-৪ দিন আগে ওই তরুণী সিলেট থেকে বাউফলে প্রেমিক রিয়াজের বাড়িতে চলে আসেন। রিয়াজ তার প্রেমিককে নিয়ে একই উপজেলার সূর্যমনি ইউনিয়নের রামনগর গ্রামে তার বোন সারমিনের বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেয়।

অভিযোগের ভিত্তিতে ওই তরুণীকে উদ্ধারের জন্য বাউফল থানার এসআই মনির ও এসআই বশারের নেতৃত্বে ৩ জন পুলিশ ও জনৈক সিদ্দিক উল্লাহ নামের এক ব্যক্তি বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত ৩টার দিকে প্রেমিক রিয়াজ হাওলাদারের নাজিরপুর গ্রামের বাড়িতে অভিযান চালান। সেখানে প্রেমিক যুগলকে না পেয়ে এসআই মনির ও এসআই বশার প্রেমিক রিয়াজের বাবা বাশার হাওলাদারকে মারধর করেন।

বাশার হাওলাদার অভিযোগ করেন, এসআই মনির ও এসআই বশার তাকে এলোপাথাড়ি ভাবে লাথি ও কিলঘুষি মারেন। অপর পুলিশ সদস্যর নাম তিনি জানেন না। তবে দেখলে চিনতে পারবেন। পুলিশি নির্যাতনে একপর্যায়ে বাশার হাওলাদার তার ছেলের অবস্থান প্রকাশ করেন। এরপর পুলিশ সূর্যমনি ইউনিয়নের রামনগর রিয়াজের বোনের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে প্রেমিক যুগলকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন। সাথে প্রেমিক রিয়াজের বাবা বাশার হাওলাদারকেও থানায় নিয়ে আসেন। একপর্যায়ে বাশার হাওলাদার অসুস্থ হয়ে পড়লে রাত সোয়া ৪টার দিকে তাকে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে বাউফল থানার ওসি শোনিত কুমার গায়েন বলেন, সিলেটের জালালাবাদ থানায় দায়েরকৃত মামলার সূত্র ধরে পুলিশ প্রেমিক রিয়াজ হাওলাদারের বাড়িতে অভিযান চালায়। তাকে না পেয়ে তার বাবার দেয়া তথ্য মতে সূর্যমনির রামনগর গ্রামের বোনের বাড়ি থেকে প্রেমিকে আটক করে এবং ওই তরুণীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এসআই মনির ও এসআই বশার কর্তৃক প্রেমিক রিয়াজের বাবাকে মারধরের ঘটনা সত্য নয়। রিয়াজের বাবা মৃগী রোগে আক্রান্ত। থানায় বসে তিনি অসুস্থ হয়ে পরলে তাকে চিকিৎসার জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়।

সর্বশেষ