১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বানারীপাড়ায় স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করায় স্বামী-সতিনের বিরুদ্ধে মামলা

অনলাইন ডেস্ক :: বরিশালের বানারীপাড়ায় সনাতন ধর্মাবলম্বী স্ত্রী সন্ধ্যা রানী দাসের অনুমতি না নিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করায় স্বামী শিবু দাস ও সতিন রাবেয়া বেগমের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে বানারীপাড়া সদর ইউনিয়নের গাভা গ্রামের গৃহবধূ সন্ধ্যা রানী দাস বাদী হয়ে তার স্বামী দিনমজুর শিবু দাস (৪০) ও সতিন রাবেয়া বেগমের (৩৫) বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলায় স্বামী শিবু দাস অনুমতি না নিয়ে উপজেলার আহম্মদাবাদ বেতাল গ্রামের দিনমজুর হানিফ মোল্লার স্ত্রী রাবেয়া বেগমকে বরিশাল কালীমন্দিরে নিয়ে সিঁদুর পরিয়ে বিয়ে ও তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন এবং যৌতুক দাবি করার অভিযোগ আনেন সন্ধ্যা রানী।

থানার ওসি মো. হেলাল উদ্দিন ও পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জাফর আহম্মেদ ওই মামলাটি তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এসআই ওসমান গনিকে নির্দেশ দেন। এসআই ওসমান গনি ওই রাতেই উপজেলার গাভা এলাকা থেকে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি শিবু দাস ও তার দ্বিতীয় স্ত্রী রাবেয়া বেগমকে গ্রেফতার করেন।

এ ব্যাপারে থানার ওসি মো.হেলাল উদ্দিন ও ওসি (তদন্ত) মো. জাফর আহম্মেদ জানান, শিবু দাস তার প্রথম স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করায় তার প্রথম স্ত্রী সন্ধ্যা রানী দাস বাদী হয়ে স্বামীসহ দুইজনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার এজাহারভুক্ত আসামি দুইজনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

এদিকে পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় দিনমজুর শিবু দাস ও তার দ্বিতীয় স্ত্রী রাবেয়া বেগম জানান, পারিবারিকভাবে তারা প্রায় দীর্ঘ ৭ বছর ধরে গাভা গ্রামে বসবাস করার সময় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ সময় তারা একে অপরকে ভালোবাসতে থাকে।

শিবু দাস জানান, তার প্রথম স্ত্রী সন্ধ্যা রানী তাকে যা ইচ্ছে তাই বকাঝকা করত। সে তার প্রথম স্ত্রীর কাছ থেকে কোনোরকম ভালোবাসা না পেয়ে হানিফ মোল্লার স্ত্রী রাবেয়া বেগমকে ভালোবাসতে থাকেন। এভাবে প্রায় ৭ বছর ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তারা এ সম্পর্ক বাস্তবে রূপ দিতে ২৮ ফেব্রুয়ারি বরিশাল কালীমন্দিরে গিয়ে বিয়ে করেন।

তিনি জানান, এর ৪ দিন পূর্বে রাবেয়া বেগম তার প্রথম স্বামী হানিফ মোল্লাকে ডিভোর্স দিয়ে ওই বিয়ে করে কালকিনী গিয়ে একটি বাসা ভাড়া করে পানের বরজে কাজ শুরু করেন। তারা পানের বরজে কাজ করে গাভা গ্রামের বাড়িতে প্রথম স্ত্রী সন্ধ্যা রানী ও তার দুই সন্তানের খরচ দিতেন বলে জানান।

রাবেয়া বেগম তার নাম পরিবর্তন না করেই মাথায় সিঁদুর দিয়ে শিবু দাসকে স্বামী হিসেবে মেনে নিয়ে এতদিন তার সঙ্গে সংসার করেছেন বলে জানান। ফলে থানা হাজতে থাকা অবস্থায় রাবেয়া বেগমকে তার পিত্রালয়ের লোকজন পরিচয় দিতে রাজি হননি।

এছাড়াও দিনমজুর শিবু দাসের প্রথম স্ত্রী সন্ধ্যা রানীর এক মেয়ে ও এক ছেলে গাভা গ্রামের বাড়িতে এবং দ্বিতীয় স্ত্রী রাবেয়া বেগমের ৮ বছর বয়সী একটি ছেলে তার পূর্বের স্বামী হানিফ মোল্লার কাছে রয়েছে বলে জানা গেছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ