১৮ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
কানাইঘাট উপজেলার প্রায় ৯০ ভাগ এলাকা বন্যা প্লাবিত শিকারপুরে আ’লীগ ও স্বতন্ত্রসহ ৩ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল বানারীপাড়ায় প্রধানমন্ত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে আ’লীগের আলোচনা সভা এনায়েতপুর হাটে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা  বাকেরগঞ্জে ওসি'র নির্দেশনায় অভিযানঃ ৮ টি গাঁজার গাছসহ আটক-১ ভোলা জেলা পুলিশের মাসিক অপরাধ ও আইন শৃংঙ্খলা পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত ভোলায় পাথরবোঝাই ট্রাক নিয়ে বেইলি ব্রিজ খালে পদ্মা সেতুতে যানবাহনের টোল নির্ধারণ করলো সরকার বরিশালে মানামী লঞ্চের কেবিন থেকে অলঙ্কারভর্তি ব্যাগ চুরি বরিশালে হঠাৎ করেই ৫ নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে

বাবুগঞ্জে ৮০ বছরের বৃদ্ধার মানবেতর জীবনযাপন

বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি— 
বরিশালের বাবুগঞ্জে ৮০ বছরের বৃদ্ধা কাঞ্চন মালার মানবেতর জীবনযাপন। প্রায় ২০ বছর ধরে অন্যের জমিতে দোচালা টিন শেড ঘর তৈরি করে কোন রকম বসবাস শুরু করেন কাঞ্চনমালা ও তার স্বামী আব্দুল অহেদ বয়াতী। তার স্বামী আব্দুল অহেদ বয়াতী প্রায় ১২ বছর আগে মারা যায়। তারপর থেকে বৃদ্ধা তার মেয়ে শেফালী বেগম কে নিয়ে বসবাস করে আসছেন। কিন্তু হটাৎ কালবৈশাখী ঝড়ে তার নড়বড়ে ঘরটিও ভেঙে যায়। এখন তিনি খোলা আকাশের নিচে জীবনযাপন করছেন। এমনকি তিন বেলার খাবারও জুটে প্রতিবেশীদের দেয়া  সাহায্য- সহযোগিতায়।
বৃদ্ধার এক ছেলে আর এক মেয়ে। ছেলে আর্থিকভাবে অসচ্ছল থাকায় তেমন খোজ খরব নিতে পারেননা।গত তিনদিন আগে বৃদ্ধার খুপরি ঘরটিও কালবৈশাখী ঝরে ভেঙে পড়ে যায়। ঘরটি হারিয়ে এখন তিনি দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।এ ঘটনাটি বাবুগঞ্জ  উপজেলার কেদারপুর ইউনিয়নের কেদারপুর গ্রামে।
 বৃদ্ধা কাঞ্চনমালা জানান, স্বামী থাকা অবস্থায়ও অনেক কষ্টে চলতো তাদের সংসার। দিন মজুরের কাজ করে তার স্বামী আব্দুল অহেদ বয়াতী উপার্জন করে সংসার চালাতেন। তাদের  নিজস্ব জমি না থাকার কারণে রাস্তার পাশে অন্যের জমিতে তারা বসবাস শুরু করেন। তবে স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে কষ্টের মাত্রা আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন মানুষ যদি সহযোগিতা করে তাহলে খেতে পারেন। আর না দিলে না খেয়ে থাকেন। এভাবেই পার হয় তাদের দিনগুলো।
 তিনি আরো জানান, কোন জনপ্রতিনিধি তাদের  খোঁজ  খবর নেয় না। আজ পর্যন্ত বয়স্ক ভাতা ছাড়া সরকারি কোনো সুযোগ-সুবিধা পাননি। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করেন।
কেদারপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নূরে আলম বেপারী জানান, তার এ ব্যাপারে জানা নেই। তাদের ব্যাপারে খোঁজ খবর নেয়া এবং সরকারি সহায়তায় প্রদানের আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।
বাবুগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ নাসির উদ্দিন বৃদ্ধা কাঞ্চন মালার খোঁজ খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন।
বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আমীনুল ইসলাম জানান, ঈদের পরেই বৃদ্ধা কাঞ্চন মালার খোঁজ খবর নেয়া হবে এবং যদি কাঞ্চনমালা প্রকৃত ভূমিহীন হন তাহলে উর্ধ্বতন কর্মকতাদের সাথে আলাপ করে ঘরের ব্যবস্থা করা হবে বলে তিনি জানান।
Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ