১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ভান্ডারিয়ায় মুক্তিযোদ্ধা বাছাই কমিটির সদস্য মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করেননি বলে মন্ত্রনালয়ে অভিযোগ

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কমিটির সদস্য মোঃ শাহাবুদ্দিন শাহ বাবুল মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করেননি বলে এ রকম অভিযোগ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয়ে মুক্তিযোদ্ধারা দিয়েছেন। অভিযুক্ত মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শাহাবুদ্দিন শাহ বাবুলের বাড়ী ভান্ডারিয়া শহরের লক্ষীপুরা এলাকায়।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাচাই কমিটির সদস্য মোঃ শাহাবুদ্দিন শাহ বাবুল স্থানীয় সংসদ সদস্য আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর প্রতিনিধি হিসেবে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কমিটির সদস্য হয়েছেন। যাচাই বাছাই কমিটির সদস্য নন এ রকম দুজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। এরা হলেন মৃত আঃ গনি শাহ পিতা মৃত আঃ হাকিম শাহ, গ্রাম লক্ষীপুরা এবং আঃ আজিজ হাওলাদার পিতা আঃ হাকিম হাওলাদার, গ্রাম ইকরী। এদের বিরুদ্ধে ভান্ডারিয়া উপজেলার দক্ষিন শিয়ালকাঠী এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ফ ম আলী বাহাদুর ও অপর দুজন মুক্তিযোদ্ধা এ অভিযোগ দিয়েছেন।
ভান্ডারিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কমিটির সদস্য সচিব ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নাজমুল আলম জানান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মাননীয় মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এ বিষয়ে তদন্ত করার জন্য গত ৯ ফেব্রæয়ারী নির্দেশ দেয়। এরপর ১২ ফেব্রæয়ারী অভিযোগকারী ও যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে তাদের কে নোটিশ দেয়া হয়। নোটিশে ১৪ ফেব্রæয়ারী সকলকে উপস্থিত থাকতে বলা হয়।
ভান্ডারিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কমিটির সভাপতি ও জেলা আওয়ীমীলীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা বাচ্চু জানান, তিনি মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। মোঃ শাহাবুদ্দিন শাহ বাবুল স্থানীয় সংসদ সদস্যের প্রতিনিধি, নিজামুল হক নান্না জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি, আর সদস্য সচিবের দায়িত্ব পালন করছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। নোটিশ দেয়ার পর মোঃ শাহাবুদ্দিন শাহ বাবুল হাজির হয়ে তার স্বপক্ষে প্রমানপত্র উপস্থাপন করেন। আর সাক্ষী হাজির করার জন্য ২৪ ফেব্রæয়ারী সময় চেয়েছেন। মোঃ শাহাবুদ্দিন শাহ বাবুল প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা কিনা এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যেহেতেু বিষয়টির তদন্ত চলছে সে কারনে এই মুহুর্তে কোনো মন্তব্য করা যাবেনা।
মোঃ শাহাবুদ্দিন শাহ বাবুল বলেন, আমি ভান্ডারিয়ায় মুক্তিযুদ্ধের ট্রেনিং নিয়েছি আর যুদ্ধও করেছি ভান্ডারিয়ায়। আমি মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কাজ বাজ বেশী করি এ কারনে অনেকেই আমার প্রতি ইর্ষান্নিত। সামনে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নির্বাচন। আমাকে হেয় করার জন্য আমার বিরুদ্ধে এ মিথ্যা অভিযোগ দেয়া হয়েছে। ২০১৯ সালের শেষের দিকে আমার বিরুদ্ধে এ রকম একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছিল, সেটাও মিথ্যা প্রমানিত হয়েছিল।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ