৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

ভোলায় পুলিশের সহায়তায় বাকপ্রতিবন্ধী মেয়ে খুঁজে পেলো নিরাপদ আশ্রয়স্থল

ইয়াছিনুল ঈমন, ব্যুরো চীফ, ভোলা ।

ভোলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ ফরহাদ সরদার এর মহানুভবতায় একজন বাকপ্রতিবন্ধী, নাম-পরিচয়বিহীন, ঠিকানাহীন, অভিভাবকহীন, অসহায় মেয়ে খুঁজে পেলো স্থায়ী নিরাপদ আশ্রয়স্থল।

গত ১৬ মে ২০২২ খ্রিঃ তারিখ রাত অনুমান ৮.৩০ ঘটিকায় ভেদুরিয়া লঞ্চঘাটে বরিশাল হতে ভোলাগামী লঞ্চের যাএীরা যখন লঞ্চ থেকে নামছিল ঠিক ওই সময়ে একজন অভিভাবকহীন বাকপ্রতিবন্ধী যাএীকে দেখা যায় যার বয়স অনুমান ১৮ বছর। লঞ্চের যাএীরা তার নাম-ঠিকানা জিজ্ঞাসা করলে মেয়েটি কোনো উত্তর দিতে পারেনি। অসহায় মেয়েটি অনেক কান্নাকাটি করতে থাকে। তখন মোঃ ফরহাদ সরদার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) উক্ত ঘাটে নিরাপত্তা ডিউটি তদারকি করতে গেলে বিষয়টি তার দৃষ্টিগোচর হয়।

অভিভাবকহীন, বাকপ্রতিবন্ধী, অসহায় মেয়েটির নিরাপত্তার স্বার্থে তিনি মেয়েটিকে পুলিশি হেফাজতে নিয়ে আসেন এবং তাকে ভোলা সদর মডেল থানার নারী, শিশু ও প্রতিবন্ধী সার্ভিস ডেস্কে দায়িত্বরত নারী পুলিশ সদস্যদের সহায়তায় তাকে নিরাপদ স্থানে সুরক্ষিত রাখার ব্যবস্থা করেন।

পরবর্তীতে রাত অনুমান ১২ টার দিকে সে শারিরীকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল তার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে মেয়েটিকে ভোলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যান এবং তার চিকিৎসা করান।

হাসপাতাল থেকে ফেরত আনার পর বাকপ্রতিবন্ধী মেয়েটির সাথে থাকা ব্যাগের ভিতর থেকে অনেক খোঁজাখুজির মাধ্যমে একটি মোবাইল নাম্বারের সূএ ধরে জানতে পারেন যে মেয়েটি পিতৃমাতৃহীন একজন সন্তান এবং অজ্ঞাতনামা হিসেবে সে কাশিমপুর সরকারি আশ্রয় কেন্দ্র, গাজীপুরে প্রায় দীর্ঘ ১২ বছর যাবৎ অবস্থান করে। সেখানকার একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তার সাথে কথা বলে জানা যায় মেয়েটির বয়স ১৮ বছর হওয়ায় তারা মেয়েটিকে একটি গার্মেন্টেসে চাকুরী দেয়। কিন্তু মেয়েটি সেখান থেকে পালিয়ে প্রথমে ঢাকা থেকে বরিশাল এবং পরবর্তীতে বরিশাল থেকে ভোলায় চলে আসে।

এমন ঘটনার প্রেক্ষাপটে জনাব মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম, পুলিশ সুপার, ভোলা এর নির্দেশনা মোতাবেক জনাব মোঃ ফরহাদ সরদার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল ভোলা এর সার্বিক সহযোগিতায় গাজীপুরের পুবাইল সরকারী আশ্রয়কেন্দ্রের দায়িত্বরত কর্মকর্তার সাথে আলোচনা সাপেক্ষে তাকে পুলিশি হেফাজতে নারী পুলিশ সহ স্কট করে গাজীপুরের পুবাইল সরকারী আশ্রয়কেন্দ্রে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়।

ভোলার মানবিক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ ফরহাদ সরদার মেয়েটিকে একটি নিরাপদ ও স্থায়ী আশ্রয়স্থান দিতে পেরে অত্যন্ত সন্তোষপ্রকাশ করেছেন। তিনি সকলকে মানবিক কাজ করার জন্য উদত্ত আহবান জানান। তিনি আরো বলেন মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম, পুলিশ সুপার, ভোলা মহোদয়ের এর দিক-নির্দেশনা মোতাবেক জেলা পুলিশের প্রতিটি সদস্যই মানবিক কার্যক্রমের ক্ষেত্রে সদা তৎপর রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ