৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ভোলায় মহানবী (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তি, পূজা পরিষদের সভাপতি আটক

অনলাইন ডেস্ক :: ভোলায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তি ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করার অভিযোগে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ভোলা জেলা শাখার সভাপতি গৌরাঙ্গ চন্দ্র দেকে (৫০) আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাতে অভিযুক্ত গৌরাঙ্গ চন্দ্র দেকে ৫৪ ধারায় আটক করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভোলার পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার।

এদিকে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তি ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্যের প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ভোলা জেলা উত্তর শাখা বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। আগামী ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ঘোষণা করেন সংগঠনের নেতা কর্মীরা।

 

জানা যায়, বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাতে সাড়ে ৯ টায় গৌরাঙ্গ (Gourango) নামের একটি ফেসবুক আইডির মেসেঞ্জার থেকে জয় রাম নামের ফেসবুক আইডির মেসেঞ্জারে মহানবী মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তি ও কুরুচিপূর্ণ ভাষায় মন্তব্য করে। পরবর্তীতে জয় রাম নামের ফেসবুক আইডিতে গৌরাঙ্গ নামের এই আইডির কথোপকথন স্কিনসট (ছবি) করে পোস্ট করেন। এতে গৌরাঙ্গকে মোসলমান দমনে সেরা নেতা দাবি করা হয়। যা দ্রুত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এতে জেলার ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

এ ঘটনায় রাতেই ভোলা সদর মডেল থানায় বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ভোলা জেলা শাখার সভাপতি গৌরাঙ্গ চন্দ্র দে নিজে একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এবং নিজের নিরাপত্তার জন্য থানায় অবস্থান নেন।

ভোলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার জানান, প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের কাজ চলছে। গৌরাঙ্গ চন্দ্র দেকে ৫৪ ধারায় সন্দেহভাজন হিসাবে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে এবং নিরাপত্তার জন্য তার বাড়িতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে সামাজিক ফেসবুকে হিন্দু সম্প্রদায়ের অনেকে গৌরাঙ্গ চন্দ্র দেকে (৫০) বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ভোলা জেলা শাখার সভাপতি পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ