৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মঠবাড়িয়ায় উঠিয়ে নিয়ে জোর করে বিয়ে : অতঃপর হত্যা : স্বামী পলাতক

সোহেল, বিশেষ প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় পপি সিকদার (১৮) নামে এক সন্তানের জননীকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী সাগর হাওলাদারের বিরুদ্ধে। বুধবার (২৩ নভেম্বর) সকালে উপজেলার উত্তর মঠবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে সাগর পলাতক রয়েছে। সে উত্তর মঠবাড়িয়া গ্রামের লিটন হাওলাদারের পুত্র।
নিহত পপির বাবা গৌতম জানান, গত ৪ বছর পূর্বে ৮ম শ্রেণীতে পড়ুয়া তার মেয়ে পপি স্কুলে যাওয়ার পথে সাগর জোর পূর্বক তুলে নিয়ে বিয়ে করেন। বিয়েতে তার পরিবার রাজি না থাকলেও তাদের দাম্পত্য জীবনে পুত্র সন্তান হওয়ায় মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে পরে মেনে নেন। কিন্তু সাগর নেশাগ্রস্থ হওয়ায় প্রায়ই পপিকে মারধর করত। সম্প্রতি পপিকে মারধর করে আমার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। দুই দিন আগে আমার ছেলে অপু মেয়েটাকে জামাই বাড়ি দিয়ে আসে। সাগর আমার মেয়েকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে।
নিহত পপির ভাই অপু সিকদার জানান, গত দুই দিন আগে আমি আমার বোনকে তারা স্বামীর বাড়িতে দিয়ে আসি, সকালে খবর পাই পপি মারা গেছে।
মঠবাড়িয়া থানার ওসি মোঃ কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে পপির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পিরোজপুর জেলা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ