১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মঠবাড়িয়ায় কুপিয়ে ছাত্রলীগ নেতার কব্জি কাটার ঘটনায় আটক ১

পিরোজপুর প্রতিনিধি :: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ছাত্রলীগ নেতার হাত কেটে বিচ্ছিন্ন করার ঘটনায় রাব্বি নামে এক তরুণকে আটক করেছে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চত করেছেন মঠবাড়িযার ওসি আ.জ.ম মাসুদ্দুজ্জামান মিলু। তিনি জানিয়েছেন, ঘটনার পর এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

জানা গেছে, এই ঘটনার পর মঠবাড়িয়া পৌর ছাত্রলীগের কর্মী শাকিল আহম্মেদ সাদি, তানভির মল্লিক, তৌফিক হাসান প্রান্ত, কোরবান জুনায়েদ হামলায় সম্পৃক্ত থাকার দায়ে বহিস্কার করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানা গেছে। সেই সাথে পৌর ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় কমিটি।

এদিকে হামলাকারীদের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেয়র রফি উদ্দিন আহম্মেদ ফেরদৌস ও উপজেলা ছাত্রলীগ। গতকাল বুধবার অপরাধীধের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান যুব ঐক্য পরিষদ। পৌর শহরে প্রতিবাদ মিছিল করেছে ছাত্রলীগ।

এর আগে, মঙ্গলবার রাতে দলীয় কোন্দল ও এলাকার আধিপত্য বিস্তারের জের ধরে শুভ শর্মা (২০) নামে এক ছাত্রলীগ নেতার ডান হাত কেটে বিচ্ছিন্ন করে দেয় প্রতিপক্ষ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। আশংকাজনক অবস্থায় ওই রাতেই শুভকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর অবস্থার অবনতি হলে সংকটজনক অবস্থায় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন। শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দ্বায়িত্বরত চিকিৎসক জানিয়েছেন, আহত শিক্ষার্থীর অবস্থা স্থিতিশীল। চিকিৎসকরা তাকে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন। আহত শুভ পৌর শহরের ৩নং ওয়ার্ড দক্ষিণ মিঠাখালী গ্রামের শ্যামল চন্দ্র শীল ওরফে কালাচাঁদের পুত্র ও মঠবাড়িয়া সরকারী কলেজের ছাত্র।

স্থানীয়রা জানান, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান সিফাতের অনুসারী পৌর সভার ৩নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শুভ মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে হাসপাতালের সামনের ব্রীজ পাড় হয়ে বাসায় ফিরছিল। এ সময় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শরিফুল রাজুর সমর্থক ছাত্রলীগ নেতা শাকিল আহম্মেদ সাদি, তানভির মল্লিক, তৌফিক হাসান প্রান্ত, কোরবান জুনায়েদের নেতৃত্বে একদল কিশোর ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে শুভর ডান হাত বিচ্ছিন্ন করে উল্লাস করে।

ঘটনার পর খবর পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ হাসপাতালে ছুটে যান এবং জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানান। এদিকে হামলার প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ যুবকরা ওই রাতেই পৌর শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে। এ সময় কতিপয় উশৃঙ্খল কিশোর পৌর মেয়রের বাসবভনে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে এবং তার ব্যবহৃত সরকারি গাড়ি ভাংচুরের চেষ্টা করে। পরে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

পৌর মেয়র রফি উদ্দিন আহম্মেদ ফেরদৌস এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেন, স্থানীয় বিরোধের জের ধরে এক ছাত্রলীগ কর্মীর ওপর হামলার ঘটনায় আমার বাসায় মিছিল দিয়ে ইট পাটকেল নিক্ষেপ, গাড়িতে হামলা করা, শান্ত মঠবাড়িয়াকে অশান্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে একটি মহল। তিনি ওই ছাত্রলীগ নেতার ওপর হামলার ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানান।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ