২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মঠবাড়িয়ায় ধর্ষণের পর অন্তঃস্বত্ত্বা স্কুলছাত্রী, অভিযুক্ত পলাতক

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি :: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে করে ওই স্কুলছাত্রী ৭ মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা হয়ে পরেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী বাদী হয়ে অভিযুক্ত নাঈম (২১) ও সহায়তা করার অপরাধে মোসাঃ নুরুন্নাহার বেগমকে আসামী করে মঠবাড়িয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছে। মামলা নং-৪০/৯৭, তারিখ-২২/০৩/২০২১ইং।

নাঈম উপজেলার বুখইতলা বান্ধবপাড়া গ্রামের মৃত মাসুদ আলমের পুত্র। ঘটনাটি জানা জানি হওয়ার পর থেকে সে পলাতক রয়েছে।

জানা গেছে, স্থানীয় একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে প্রায়ই উত্যক্ত করত নাঈম। একপর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে, ফুসলিয়ে প্রেমের সম্পর্ক ও শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে সে। প্রথম ঘটনার দিন ২০২০ সালের ১৪ মার্চ সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে ওই ছাত্রীর মা বাড়িতে না থাকার সুযোগে এবং পরবর্তীতে বিভিন্ন সময় মোবাইলে যোগাযোগ করে সুবিধামত সময়ে শারীরিক সম্পর্ক করত ওই যুবক। সম্প্রতী মেয়েটির শারীরিক অবস্থার পরিবর্তন হলে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে সব কিছু খুলে বলে। প্রতারণা ও ধর্ষণের শিকার ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী চরম বিপাকে পড়ে পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়দের নিয়ে অভিযুক্তের বাড়িতে অবস্থান নেয়। কিন্তু অভিযুক্ত লম্পট নাঈম ও তার পরিবারের লোকজন সুকৌশলে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস,আই আসাদুজ্জামান জানান, মামলাটি অধিকতর তদন্তাধীন রয়েছে। সুষ্ঠু তদন্তে আসামী শনাক্ত হওয়ার পর গ্রেপ্তার অভিযান চালানো হবে।”

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ