২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
সেলুনে চুল কাটার নোটিশ দিয়ে বিপাকে জাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান!  চরফ্যাশনে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত চরফ্যাশনে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত দাফনের দুই মাস পর কবর থেকে কৃষকের লাশ উদ্ধার পিরোজপুরে দাফনের ২ মাস পর কবর থেকে কৃষকের লাশ উত্তোলন উজিরপুরে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নলছিটিতে কলেজছাত্র রুম্মান হত্যার বিচার দাবিতে মানববন্ধন আগুনমুখা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলন ড্রেজারের পাঁচ শ্রমিককে তিন মাসের জেল, একজনকে জরিমানা উজিরপুরে দুই মাদক ব্যাবসায়ীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ ২২দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে ইলিশ শূণ্যতায় হতাশ জেলেরা

মাদারীপুরে জমির বিরোধে গোডাউনে আগুনে দেয়ার অভিযোগ

জাহিদ হাসান,মাদারীপুর জেলা প্রতিনিধি:
জমি-জমা বিরোধের জেরে একটি বিস্কুটের গোডাউনে রাতের আধারে আগুন দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এমন অভিযোগ করেছেন মাদারীপুর সদর উপজেলার পৌরসভাধীন হাজরাপুর গ্রামে মাহফুজুর রহমান রোমানের। তিনি প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবী করেন। মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছে সদর থানা পুলিশ।
ক্ষতিগ্রস্থ্য ব্যক্তি ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, পৌরসভার হাজরাপুর গ্রামের চর খাগদী মৌজায় মাহফুজুর রহমান রোমান ও তার স্ত্রী নাঈমা রহমান সাত বছর আগে ৬২ শতাংশ জমি ক্রয় করে। এরপর থেকেই ওই এলাকার খোকন মোল্লা ও শেখ দুলাল আহম্মেদ মিয়ার সাথে বিরোধ চলে আসছিল। এরই সূত্র ধরে সোমবার সন্ধ্যায় রোমান আর শেখ দুলালের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। ফলে রাত দেড়টার দিকে শেখ দুলাল আর খোকন মোল্লার লোকজন রোমানের একটি বিস্কুট গোডাউনে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে রোমানের অভিযোগ। পরে মাদারীপুরের ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সহযোগিতায় দ্রুত সময়ের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে চরমুগরিয়ার পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন।
প্রাথমিকভাবে ধারণা করা যাচ্ছে, আগুনের ফলে গোডাউনের থাকায় প্রায় এক লাখ টাকার মালামাল ক্ষতি হয়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে সদর থানার এসআই নজরুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত করেছেন।
ভূক্তভোগি মাহফুজুর রহমান রোমান বলেন, ‘জমির বিরোধ ধরে শেখ দুলাল আর খোকন মোল্লার লোকজন আমার গোডাউনে আগুন ধরিয়ে গিয়েছে। আমি তাদের বিরুদ্ধে থানার প্রস্তুতি নিচ্ছি। তারা এর আগেও গত বছর আমার নির্মানাধিন ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। তাদের বিরুদ্ধে তখনও মামলা করেছিলাম। পরপর দু’বার তারা এমন ক্ষতি করলো, তাদের কঠোর বিচার হওয়া উচিত।’
ঘটনার পর থেকে শেখ দুলাল আর খোকন মোল্লাকে বাড়ী গিয়ে পাওয়া যায়নি। তাদের পরিবারের সদস্যরা দাবী করেন, তারা বাড়ীতে নেই।
এ ব্যাপারে মাদারীপুর সদর থানার ওসি মো. কামরুল ইসলাম মিঞা বলেন, ‘ঘটনা শুনে একজন এসআই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আসছে। প্রাথমিকভাবে কেউ ইচ্ছেকৃতভাবে আগুন দিয়েছে, এটা সঠিক। তবে কে বা কারা আগুন দিয়েছে সেটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এর আগে কিছু বলা যাচ্ছে না। ভূক্তভোগি অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ