২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মাদ্রাসা শিক্ষা উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে সরকার, চরফ্যাশনে ডিজি হাবিবুর রহমান

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

 

এম লোকমান হোসেন, নিজস্ব প্রতিবেদক : মাদ্রাসা শিক্ষা উন্নয়নের নিরলস কাজ করে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। মাদ্রাসার অবকাঠামো উন্নয়ন নতুন নীতিমালা প্রণয়ন, শিক্ষকদের মানসম্মত বেতন কাঠামো স্বতন্ত্র ও সংযুক্ত এবতেদায়ী শিক্ষার্থীদের পর্যায়ক্রমে উপবৃত্তি চালু করণ স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনের লক্ষে শিক্ষকদেরকে প্রশিক্ষণের আওতায় অন্তর্ভুক্তিকরণ সহ নানাবিধ কার্যক্রম করে যাচ্ছে সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আজ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন সকালে চরফ্যাশন ও ভোলা জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের র্যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এক মতবিনিমযয় সভায় এসব কথা বলেন মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক উপ সচিব হাবিবুর রহমান । চরফ্যাশন উপজেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সাধারণ সম্পাদক কামরজ্জামানের সঞ্চালনায় জেলা জমিয়তের সভাপতি আব্দুল খালেক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠবত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তিনি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শাখার উপসচিব বেগম শাহনেওয়াজ দিলরুবা খান। এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের ভোলা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বেরুল হক নাঈম ও চরফ্যাশন উপজেলা জমিয়তের সভাপতি অধ্যক্ষ নিজাম উদ্দিন হুমায়ুন সরমান। বক্তারা তাদের বক্তব্যে মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়নে অগ্রগতি শিক্ষকদের বেতন কাঠামো পরিবর্তন সমাজ বিজ্ঞান শিক্ষকদের টাইম স্কেল প্রণয়ন সহ নানাবিধ সমস্যার কথা তুলে ধরেন।এ সময় মহাপরিচালক বলেন মাদ্রাসা শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সকল সমস্যা ও দাবি-দাওয়া নিরসনে আমরা নিরলস কাজ করে যাচ্ছি। এ বছর স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির জনক ৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে যা পর্যায়ক্রমে আরও বৃদ্ধি করা হবে। প্রতিষ্ঠান প্রধানদের এবং সহকারী শিক্ষক সমাজবিজ্ঞান শিক্ষকদের টাইম স্কেল প্রসঙ্গে তিনি বলেন সমস্যাটি অতি দ্রুত নিরসন করার চেষ্টা চলছে। জেলা জমিয়তের সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বেরুল হক নাঈম বলেন মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর জমিয়তের আন্দোলনের ফসল জননেত্রী শেখ হাসিনার নিকট জমিয়তের একটি দাবি ছিল শিক্ষকদের জন্য আলাদা মাদরাশা শিক্ষা অধিদপ্তর প্রণয়ন সেই দাবির প্রেক্ষিতে মাদরাসা শিক্ষকদের জন্য মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর এবং ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হয় । মাদ্রাসা শিক্ষকদের যে স্বপ্ন পুরনের জন্য মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে সে স্বপ্ন যেন পুরন হয় সে বিষয়ে নজর রাকার জন্য মহাপরিচালক বরাবর অনুরোধ করেন। মহাপরিচালক হাবিবুর রহমান তার এই দাবীর প্রিক্ষতে বলেন আমরা নিরলস ভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছি কোথাও কোনো সমস্যা হলে আপনারা আমাদেরকে অবহিত করবেন আমরা তা সমাধান করার চেষ্টা করব।স্থানীয় সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপির রিসোর্টে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে ভোলা জেলার বিভিন্ন মাদ্রাসার প্রধান এবং চরফ্যাসন উপজেলার সকল মাদ্রাসার প্রধান ও সহকারী শিক্ষকগণ অংশগ্রহণ করেন।

সর্বশেষ